বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন, ২০২২ | ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

অভিনব পন্থায় ফেন্সিডিল পাচারের সময় যুবক আটক

প্রকাশের সময়: ৯:৫৫ অপরাহ্ণ - সোমবার | ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২২
currentnews

মহিনুল ইসলাম সুজন, নীলফামারী : নীলফামারীর ডিমলায় অভিনব পন্থায় চালসহ বস্তার ভেতরে করে ফেন্সিডিল পাচারের সময় ৭২ বোতল ফেন্সিডিলসহ আসাদুল ইসলাম(২১)নামের এক যুবককে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী।আটককৃত ওই যুবককে সোমবার (২১শে ফেব্রুয়ারি)দুপুরে আদালতে সোপর্দ করেছে ডিমলা থানা পুলিশ।

জানা যায়,উপজেলার খালিশা চাপানী ইউনিয়নের ৯নম্বর ওয়ার্ডের পাইকারটারী গ্রামের তবিবুল ইসলামের পুত্র আসাদুল ইসলাম(২১)সহ দুই ব্যক্তি ঝুনাগাছ চাপানী ইউনিয়ন হতে রবিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা প্রায় ছয়টার সময় কাঁচপুর যাওয়ার জন্য জোসনা পরিবহনের ওই ইউনিয়নের বাস কাউন্টারে একটি চালের বস্তা নিয়ে আসেন।এ সময় বাসের হেলপার বস্তাটি গাড়িতে তুলতে ঠাট্রার ছলে তিনশত টাকা দাবি করলে চালের বস্তাটির মালিক তাতেই রাজি হয়ে দ্রুত বস্তাটি গাড়িতে তুলতে বলেন।এতেই সন্দেহ হয় গাড়ির হেলপারসহ কাউন্টার ম্যানেজার লোকমান ও আব্দুল আজিজের।পরে তারা বস্তাটি খুলে তল্লাশি করলে তাতে চালের সাথে অভিনব পন্থায় লুকানো ফেন্সিডিল দেখা মাত্রই যুবক আসাদুলের সাথে থাকা অপর ব্যক্তি ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।এরপর চালের বস্তায় ফেন্সিডিলসহ যুবক আসাদুলকে আটকে রেখে বাস কাউন্টার কর্তৃপক্ষ ও উৎসুক এলাকাবাসী ডিমলা থানা পুলিশকে খবর দিলে ডিমলা থানার ওসি (তদন্ত)বিশ্বদেব রায়ের নেতৃত্বে এসআই আবুল কালামসহ সঙ্গীয়ফোর্স ঘটনাস্থলে পৌঁছে চালের বস্তার ভেতর থেকে ৭২ বোতল ফেন্সিডিল সহ ওই যুবককে আটক করেন।ঝুনাগাছ চাপানী ইউনিয়নের জোসনা ও তাজ পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার লোকমান জানান,আসাদুলসহ দুই ব্যক্তি রবিবার এখান থেকে কাঁচপুর যাওয়ার জন্য দুটি সিট বুক করেন রাখেন।কিন্তু গাড়ি ছাড়া নির্ধারিত সময়ের প্রায় ১৫ মিনিট পর তারা দুজনে একটি বস্তা নিয়ে আসায় তাদের কাছে বস্তা গাড়িতে তোলা বাবদ হেলপার তিনশত টাকা দাবি করেন।তারা এক কথায় তিনশত টাকা দিতে রাজি হয়ে বস্তা দ্রুত গাড়িতে তুলতে বলায় এতে আমাদের সন্দেহ হলে বস্তা খুলে চালের সাথে ফেন্সিডিল দেখতে পেয়ে আমরা আসাদুলকে আটকে রেখে পুলিশকে খবর দেই।ডিমলা থানার ওসি(তদন্ত)বিশ্বদেব রায় বলেন, আটককৃত ব্যক্তির নামে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা নম্বর-১৪,তারিখ-২১/২/২০২২ইং দায়ের করে আদালতে সোপর্দ করা হলে আদালতের বিজ্ঞ বিচারক তাকে কারাগারে প্রেরণ করেন।

আর্কাইভ

বিজ্ঞাপন

উপরে