রবিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৮ | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

পাঞ্জাবে পুলিশের বেশে জেলে ঢুকে ছয় জঙ্গি সঙ্গীকে ছিনতাই !

প্রকাশের সময়: ১১:৪১ পূর্বাহ্ণ - মঙ্গলবার | নভেম্বর ২৯, ২০১৬

5কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:

পুলিশের পোশাকে এসে গুলি চালাতে চালাতে ছয় সঙ্গীকে জেল থেকে ভাগিয়ে নিয়ে গেল দুষ্কৃতীরা। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার পঞ্জাবের নাভা সেন্ট্রাল জেলে। পুলিশ জানিয়েছে, পলাতক ছয় জন বন্দির মধ্যে খালিস্তান লিবারেশনের চিফ হরমিন্দর সিংহও রয়েছে।আন্তর্জাতিক সূত্রের খবর, এ দিন পুলিশের পোশাকে দুটি গাড়িতে ওই ১০ দুষ্কৃতী জেলের সামনে আসে। জেলের মেইন গেটের বাইরে দাঁড়িয়ে থাকা এক নিরাপত্তারক্ষীর পেটে ছুরি ঢুকিয়ে দেয়। তার পর দরজা দিয়ে ভিতরে ঢুকে জেলের তামাম নিরাপত্তা ব্যবস্থা পেরিয়ে বিনা বাধায় পৌঁছে যায় জেলের ভিতরে যেখানে অপরাধীদের বন্দি করে রাখা হয়েছে। ওই জেলেই তাদের গ্যাঙের ছয় দুষ্কৃতী বন্দি ছিল। তাদের মধ্যে রয়েছে ভিকি গোন্ড্রা, গুরপ্রীত সিংহ, নীতীন দেওয়ল এবং বিক্রমজিৎ সিংহের মতো কুখ্যাত গ্যাংস্টারও। ওই জেলেই বন্দি ছিল খালিস্তান লিবারেশনের চিফ হরমিন্দরও। ১০টি সন্ত্রাস হামলার সঙ্গে জড়িত হরমিন্দরকে দিল্লি পুলিশ ২০১৪ সালে দিল্লি বিমানবন্দর থেকে গ্রেফতার করেছিল।

এ দিন গুলি করে জেলের তালা ভেঙে ফেলে পুলিশের বেশে থাকা বন্দুকবাজেরা। গুলির শব্দে ছুটে আসেন কারারক্ষীরা। তাদের লক্ষ্য করে গুলি চালায় তারা। পাল্টা গুলি চালায় দুষ্কৃতীরাও। দু’পক্ষের মধ্যে প্রায় ১০০ রাউন্ড গুলি বিনিময় হয় বলে জানা গিয়েছে। অনেকটা সিনেমার মতোই গুলি চালাতে চালাতে দুষ্কৃতীরা জেল থেকে পালিয়ে যায়। পুরো ঘটনায় জখম হয়েছেন দুই পুলিশ কর্মী।

ঘটনার পরই পুরো এলাকায় চিরুণি তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। সমগ্র পঞ্জাব জুড়েই সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে। বিশেষ ভাবে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে হরিয়ানা, জম্মু-কাশ্মীরকে। পঞ্জাব পুলিশের ডিরেক্টর জেনারেল সুরেশ অরোরা উদ্বিগ্নতা প্রকাশ করেছেন পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী সুখবীর সিংহ বাদলের কাছে। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে সাসপেন্ড করা হয়েছে ওই দিন দায়িত্বে থাকা এক জেল কর্তাকে।

এই ঘটনার পর প্রশ্ন উঠেছে জেলের নিরাপত্তা নিয়েও। কী ভাবে জেলের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পেরিয়ে তারা ভিতরে ঢুকল? এত পুলিশি ব্যবস্থা থাকা সত্ত্বেও কী ভাবেই বা জেল থেকে পালাল তারা তা জানাতে বলা হয়েছে জেল কর্তাকে।

শুধু এই ঘটনাই নয়, গত অক্টোবরেই এক কারারক্ষীকে খুন করে, অন্য কারারক্ষীর হাত-পা বেঁধে ভোপালের সেন্ট্রাল জেল ভেঙে পালিয়েছিল নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন সিমি-র ৮ জঙ্গি।

উপরে