মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর, ২০১৮ | ২৯শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

নামাজে মোবাইল বেজে উঠলে করণীয়

প্রকাশের সময়: ৯:১০ অপরাহ্ণ - শনিবার | ফেব্রুয়ারি ৪, ২০১৭

কারেন্টনিউজ ডটকমডটবিডি: নামাজের সময় পকেটে থাকা মোবাইল বেজে উঠা স্বাভাবিক বিষয়। এখন অবশ্য প্রায় মসজিদেই ইমাম কিংবা মোয়াজ্জিন নামাজে দাঁড়ানোর আগে মোবাইল বন্ধ করার বিষয়ে সতর্ক করে থাকেন। তার পরও মোবাইল বিভ্রাটের ঘটনা ঘটে।

নামাজের সময় পকেটে থাকা মোবাইল বেজে উঠা স্বাভাবিক বিষয়। এখন অবশ্য প্রায় মসজিদেই ইমাম কিংবা মোয়াজ্জিন নামাজে দাঁড়ানোর আগে মোবাইল বন্ধ করার বিষয়ে সতর্ক করে থাকেন। তার পরও মোবাইল বিভ্রাটের ঘটনা ঘটে। নামাজের সময় মোবাইল বেজে উঠলে করণীয় সম্পর্কে ইসলামি স্কলারদের অভিমত হলো-

১. মোবাইলের দিকে না তাকিয়ে এক হাত দিয়ে দ্রুত মোবাইল বন্ধ করে দেওয়া। তাহলে নামাজ নষ্ট হবে না। চাই পকেটের ওপর থেকে বন্ধ করা হোক বা ভেতরে হাত দিয়ে বন্ধ করা হোক। নামাজ অবস্থায় মোবাইল বেজে উঠলে তা বন্ধ করার এটাই উত্তম ব্যবস্থা।

২. পকেট থেকে বের করে দেখে দেখে বন্ধ করলে, এক হাত দিয়ে বন্ধ করলেও নামাজ ভেঙে যাবে। কারণ এ অবস্থায় কোনো আগন্তুক তাকে দেখলে সে নামাজে নেই বলেই প্রবল ধারণা করবে। যেটাকে ইসলামে পরিভাষায় আমলে কাসির বলে। আর নামাজে আমলে কাসির করলে নামাজ ভেঙে যায়।

৩. বুক পকেট থেকে বের করে দেখে দেখে বন্ধ করলেও নামাজ ভেঙে যাবে।

৪. ফোল্ডিং সেটও না দেখে এক হাত দ্বারা দ্রুত বন্ধ করে দিলে নামাজ ভাঙবে না। কিন্তু যদি দুই হাত ব্যবহার করে কিংবা দেখে দেখে বন্ধ করে তবে নামাজ ভেঙে যাবে। তেমনিভাবে এক হাত দিয়ে বন্ধ করতে গিয়ে যদি তিন তাসবিহ পরিমাণ সময় ব্যয় হয়ে যায় তবুও নামাজ ফাসেদ হয়ে যাবে।

উপরে