শনিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৮ | ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

পাবনায় জামায়াত নেতার সাথে পিকনিকে যাওয়ায় ইউএনও ওএসডি,ওসি ক্লোজ

প্রকাশের সময়: ৯:৫৩ পূর্বাহ্ণ - বুধবার | মার্চ ১, ২০১৭


কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:
আব্দুল লতিফ রঞ্জু ,পাবনা প্রতিনিধি: আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস ও মহান শহীদ দিবসে জামায়াত নেতার সঙ্গে পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার ইউএনও এবং আটঘরিয়া থানার ওসি পিকনিক এবং নৌ-ভ্রমন নিয়ে পাবনার রাজনৈতিক অঙ্গনে তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় সোমবার আটঘরিয়ার ইউএনও মো: সাইদুজ্জামানকে জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয়ে ওএসডি করা হয়েছে। একই ঘটনায় মঙ্গলবার আটঘরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম ফারুক হোসেনকে পাবনা পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়েছে। তবে ঈশ্বরদীর ইউএনও শাকিল মাহমুদ ঐ বনভোজনে অংশগ্রহণ করলেও তার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।
সংশ্লিষ্টরা জানান, গত ২১ ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ দিবস ও আন্তজার্তিক মাতৃভাষা দিবসের কর্মসুচি পালন করে পাবনা জেলা জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর ও উপজেলা চেয়ারম্যান মাও: জহুরুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: সাইদুজ্জামান, আটঘরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম ফারক হোসেন, আটঘরিয়া মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ মো: খলিলুর রহমান, উপজেলা একাডেমিক সুপার ভাইজার শিপ্রা রানী মন্ডলসহ উপজেলার বেশ কিছু কর্মকর্তা ঈশ্বরদীর পাকশীতে বনভোজনে অংশ নেন। পরে তারা পদ্মা নদীতে নৌ-ভ্রমন করেন।
এ ব্যাপারে আটঘরিয়া উপজেলার কয়েকজন বীরমুক্তিযোদ্ধা প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, মহান শহীন দিবস ও আন্তর্জাতিক মার্তৃভাষা দিবসে সরকারী কর্মসূচী পালন না করে সরকারী খরচে জামায়াত নেতাকে নিয়ে বনভোজন করায় আটঘরিয়ার ইউএনওকে ওএসডি এবং থানার ওসি কে ক্লোজ করা হয়েছে, এতে আমরা খুশি। তবে এই বনভোজনে আরও বেশকিছু কর্মকর্তাও ছিলেন, তাদেরকেও শাস্তির দেওয়া দরকার। আটঘরিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জহুরুল হক বলেন, জামায়াত নেতার সাথে শহীন দিবস ও আন্তর্জাতিক মার্তৃভাষা দিবসে বনভোজন করায় ইউএনও সাইদুজামানকে এবং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফারুক আহম্মেদকে ক্লোজ করা হয়েছে এতে আমরা খুশি। তবে এই দিনে জামায়াত নেতা ও উপজেলা চেয়ারম্যান মাও: জহুরুল ইসলামেরও শাস্তি পাওয়া উচিত।
এ ব্যাপারে পাবনার পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির বলেন, আটঘরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম ফারুক হোসেনকে বিশেষ কারণে পাবনার পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়েছে।
পাবনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (স্বার্বিক) মাকসুদা বেগম সিদ্দিকা বলেন, আটঘরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: সাইদুজ্জামানকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে বদলী করা হয়েছে। তবে কি কারণে তাকে বদলী করা হয়েছে তা জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন তিনি।
উল্লেখ্য, মহান ২১শে ফেব্রুয়ারি শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মার্তৃভাষা দিবসে পাবনার আটঘরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ওসি এবং উপজেলা বেশ কিছু কর্মকর্তাদের নিয়ে জেলা জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর মাও: জহুরুল ইসলামের সাথে বনভোজনে ব্যস্ত সময় পার করেন। এ নিয়ে সামাজিত যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় উঠে।

উপরে