সোমবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৮ | ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

ছাত্র রাজনীতিকে কলুষিত যেন না করে শিক্ষকরা: এনামুল হক শামীম

প্রকাশের সময়: ১০:১৫ অপরাহ্ণ - শুক্রবার | মার্চ ৩১, ২০১৭

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:
রাহুল এম ইউসুফ, জাবি প্রতিনিধি: শিক্ষক রাজনীতি যেন ছাত্র রাজনীতিকে কলুষিত না করে। কখনো কখনো শিক্ষকদের অপরাজনীতির কারণে বলির পাঠা হয় ছাত্র-ছাত্রীরা। শ্রদ্ধেয় এই শিক্ষকদের আমরা সম্মান করি। শিক্ষক রাজনীতি হবে শিক্ষকদের কল্যাণে। আর এরই মাধ্যমে শিক্ষার প্রকৃত পরিবেশ বজার রাখার আহবান জানিয়েছেন এ কে এম এনামুল হক শামীম।

আজ শুক্রবার (৩১মার্চ) সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) সেলিম আল দীন মুক্তমঞ্চের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের আয়োজনে ৭ দিনব্যাপী মুক্তিসংগ্রাম নাট্যোৎসবের আজ  শেষ দিন। প্রথম অধিবেশন তথা আলোচনা অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপস্থিত জাবি উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের প্রতি সম্মান জানিয়ে  বলেন, “আপনি বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে দেশের প্রথম নারী উপাচার্য। আপনার যোগ্যতা, মেধা ইতোমধ্যেই সারা দেশে সুনাম অর্জন করেছে। আমরা আপনাকে নিয়ে গর্বিত। আপনি খেয়াল রাখবেন শিক্ষক কিংবা ছাত্ররাজনীতির কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের যেনো কোনো দুর্নাম না হয়।”

জাবি কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (জাকসু) সাবেক এই ভিপি আরো বলেন, “বঙ্গবন্ধুর ঘাতকরা জানতো না জীবিত বঙ্গবন্ধুর চেয়ে মৃত বঙ্গবন্ধু আরো বেশি শক্তিশালী। তার প্রমাণ হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ এ যাবৎ যতবার বাজানো হয়েছে পৃথিবীর আর কোনো নেতার ভাষণ এতবার বাজানো হয়নি।”

এসময় উপস্থিত জাবিতে প্রথম স্বাধীনতার পতাকা উত্তোলনকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. মো. মতিউর রহমান বলেন, “একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে আমাদের হাতে যে অস্ত্র ছিল আজ আমাদের হাতে তা নেই। থাকলে বাংলাদেশকে ধ্বংসের ষড়যন্ত্রকারী জঙ্গীদেরকে প্রতিরোধ করার জন্য আরো একটি বার মুক্তিযুদ্ধ করতাম।”

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক মো. আবুল হোসেন, বহুরূপী নাট্য সংস্থার সচিব শাহাদাৎ হোসেন খান হিলু, নাট্য নির্দেশক আতাউর রহমান খান, সংগীত শিল্পী এন্ড্রু কিশোর, মিশুক মুনীরের সহ-ধর্মীনি মঞ্জুলী কাজী, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি হাসান আরিফ, একুশে টিভির সিইও মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, ইত্তেফাকের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক তাসমীমা হোসেন, ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের পরিচালক বশির আহমেদ এবং বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

উপরে