বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

পুঠিয়ার সড়ক সূর্ঘটনায় নিহত গোলাম রাব্বান‘র পরিবারের মানবেতর জীবন-যাপন

প্রকাশের সময়: ৯:১৮ পূর্বাহ্ণ - বৃহস্পতিবার | এপ্রিল ৬, ২০১৭

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:

মোঃ মেহেদী হাসান পুঠিয়া প্রতিনিধিঃ সড়ক সূর্ঘটনায় গোলাম রাব্বান(৬৪) নামের এক ডউল মেল শ্রমিকের মৃত্যুবরণ করার পর থেকে মানবেতর জীবন-যাপন করছে তার পরিবার। নিহত গোলাম রাব্বানের স্ত্রী সমেজান গত ২০ দিন ধরে সংসারে তিন মেয়েকে নিয়ে পরেছেন মহাবিপদে। পাচ্ছেনা কোন সাহায্য-সহযোগিতা।
জানা যায়, রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার দিঘলকান্দী গ্রামের মৃত বেলায়েত মন্ডলের ছেলে মোঃ গোলাম রাব্বান(৬৪) বানেশ্বরে সোবাহান সরকারের ডাউল মেলে ১০০টাকা নাইট হিসেব কাজ করতো। সেখানে কাজ করাকালে গত ২১মার্চ রাতে প্রয়োজনীয় কাজে তৈল পাম্পে যাওয়ার পথে একটি আটো রিক্স ধাক্কা দেয়, এতে সে গুরুত্বর আহত হয়ে রাজশাহী মেডিকাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২৪ মার্চ সকাল ১১টায় মারা যায়। অভাবের সংসারে একমাত্র উপর্জোনকরী মারা যাওয়ায় ও স্বামী মরা এক মেয়ে এবং স্বামী পরিত্যক্তা দুই মেয়েকে নিয়ে গত ২০/২৫দিন চরম কষ্টে দিন যাপন করছে বলে জানিয়েছেন রাব্বানের স্ত্রী সমেজান বেগম। তিনি আরো জানায়, তাদের বিয়ে হয় প্রায় ৪৫/৫০বছর আগে। বিয়ের শুরু থেকেই অভাব-অনাটন লেগেই আছে। ফসালি জমি নাই অন্যের জমিতে কাজ করে সংসার চলতো। এর মধ্যে তিন ছেলে ও চার মেয়ের জনক-জননি হয় তরা। ছেলেরা সাবালক হওয়ার পর থেকে বাবা-মাকে ভুলে গিয়ে অন্যত্রে সংসার যাপন করছে। আর মেয়েদের কোন মতে বড় করে বিয়ে দেয়। বিয়ের কয়েক বছর পর বড় মেয়ের স্বামী মারা যায়। তারপর থেকে বাপের বাড়ি, আর দুই মেয়ের কারন বসত স্বামী পরিত্যক্তার পর বাবার বাড়িতেই। নিজের সংসার তারপর আবার তিন মেয়েকে চালাতে হিমসিম খেতে হতো দিন মুজুর গোলাম রুব্বানকে। এরই মধ্যে গত ২১শে মার্চ দূর্ঘটনায় শিকার হয়ে গত ২৪শে মারা যাওয়ার পর থেকে চমর অনাহারে দিন যাপন করতে হচ্ছে গোলাম রাব্বানের স্ত্রী সমেজান বেওয়াকে।

 

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

উপরে