শনিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৮ | ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

রংপুরের কাউনিয়ায় ৫০বছরের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করেছে এক প্রভাবশালী

প্রকাশের সময়: ৭:২৫ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার | এপ্রিল ১১, ২০১৭

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:

নুর হাসান চান রংপুর : কাউনিয়া উপজেলার টেপামধুপুর ইউনিয়নের টেপামধুপুর হাট সংলগ্ন রাজিব গ্রামে প্রায় ৫০ বছরের চলাচলের রাস্তা টি বন্ধ করে দিয়েছে প্রভাবশালী আজাহার আলীর পুত্র আমিরুল ইসলাম কেরু। একারণে কয়েকটি পরিবার অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে লিখিত অভিযোগে জানাগেছে, প্রভাবশালী আমিরুল ইসলাম কেরু রাতের আধারে জেএলনং ৭৩, খতিয়ান নং এসএ ৬৩৯৩ সাবেক দাগ ৬৫৯১ সাধারন জনগনের চলাচলের একমাত্র রাস্তা টি টিনের ঘর তুলে ও বাশেঁর বেড়া দিয়ে রাস্তার দুই পাশ বন্ধ করে দিয়েছে। এর ফলে এই রাস্তা দিয়ে চলাচল কারী নুরুল ইসলাম, আঃ কাফি, আয়নাল হক, লাকি বেগম, সামিরন, ফজলুল হক, আমিনুল ইসলাম সহ ৮টি পরিবার ও লস্করপাড়ার লোকজন চলাচল করতে না পেরে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে। এব্যাপারে পরিবার গুলো ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম সফির নিকট রাস্তাটি খুলে দেওয়ার জন্য আবেদন করে। কিন্তু সেখানে তারা কোন সুবিচার না পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে আবেদন করেন। স্থানীয় আজিজুল ইসলাম জানান পাকিস্তান আমল থেকে এই রাস্তা দিয়ে লোকজন চলচল করে তা দেখে আসছি। আঃ বাতেন জানান আমি এখানে বাড়ি করেছিলাম কিন্তু রাস্তা বন্ধের কারনে আমি বাড়ি ভেঙ্গে ্অন্যত্র বাড়ি করেছি। এব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান জানান আমি জানি রাস্তাটি চলাচলের জন্য দীর্ঘদিন থেকে ব্যবহার হয়ে আসছে। বিষয়টি মিমাংসার জন্য কেরুকে ডাকলে সে শুধু কালক্ষেপন করছে। এভাবে মানুষের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করা তার ঠিক হয়নি। অপরদিকে সার্ভেয়ার খয়রাত মিয়া জামান সরেজমিনে পরিদর্শন করে যে প্রতিবেদন দাখিল করেছেন তাতে তিনি ৩ ফিট রাস্তা আছে বলে উল্লেখ করে বলেন ওই রাস্তা দিয়ে এসে পরিবার গুলো এলজিইডির রাস্তায় উঠেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার দীপঙ্কর রায় জানান আমি সরজমিনে গিয়ে দেখে ব্যবস্থা গ্রহন করবো। বর্তমানে পরিবার গুলো চলাচল করতে না পেরে মানবেতর জীবন যাপন করছে। পরিবার গুলো রাস্তাটি দ্রুত খুলে দেয়ার দাবী জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে। এব্যাপারে আমিরুল ইসলাম কেরু জানান রাস্তা বন্ধ করে দেয়ার অভিযোগ সঠিক নয় । বাড়ীর কাজ করার জন্য ঘর সরানো হয়েছে।

উপরে