সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

আমি খুব খুশি, সবাই এক হয়ে গেল

প্রকাশের সময়: ২:১৮ অপরাহ্ণ - বুধবার | মে ৩, ২০১৭
কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি: গণমাধ্যমের কাছে পরিচালকদের ব্যাপারে ‘অসম্মানজনক’ মন্তব্য করার অভিযোগে পরিচালক সমিতিসহ এফডিসির ১২টি সংগঠন শাকিব খানের সঙ্গে কাজ না করার সিদ্ধান্ত নেয়। এর দুই দিন পর শাকিব খান নিজে এসে ক্ষমা চান পরিচালকদের কাছে। ক্ষমাও পেয়েছেন। কিন্তু ঘটনার সুরাহা হওয়ার আগ পর্যন্ত কোনো প্রতিক্রিয়া দেননি অপু বিশ্বাস। সমাধান হওয়ার পর কথা বলেছেন এই ঢালিউড নায়িকা।

পরিচালকসহ এফডিসির সব সংগঠনের সঙ্গে শাকিব খানের বিরোধের অবসান হয়েছে  ব্যাপারে আপনার প্রতিক্রিয়া কী?
আসল কথা কি, এই চলচ্চিত্রের মানুষগুলো শাকিবের কাছে তার পরিবারের মতোই। ১৮ বছর ধরে চলচ্চিত্রের এই পরিবারের সঙ্গে সে আছে। আমি মনে করি, এই দীর্ঘ সময়ে শাকিব নিজের পরিবারের চেয়ে বেশি সময় কাটিয়েছে চলচ্চিত্রের মানুষদের সঙ্গে। যাঁদের সঙ্গে শাকিবের সমস্যা তৈরি হয়েছিল, তাঁরা শাকিবের বয়সে বড় ও শ্রদ্ধার। আবার শাকিবও তাঁদের স্নেহের। তাই দ্রুতই একটা সুন্দর সমাধান হয়ে গেছে। ঘরের ছেলে ঘরে ফিরবে, তাঁদের ভালোবাসা পাবে—এটাই স্বাভাবিক। সবাই এখন এক হয়ে গেল, আমি খুশি।

কিন্তু পরিচালকদের সঙ্গে সমস্যা তৈরির পর থেকে শাকিব খান কিছুটা বিচলিত হয়ে পড়েন সেই সময় স্ত্রী হিসেবে আপনাকে তাঁর পাশে দেখা যায়নি কেন?

এই চলচ্চিত্রাঙ্গন শাকিবের কাছে যেমন পরিবারের মতো, আমারও। এখন একটা সম্পর্কের মধ্য দিয়ে শাকিবও আমার পরিবার। তাই এই দুই পরিবারের মাঝে দাঁড়িয়ে আমার কীই-বা বলার ছিল? এখানে আমরা সবাই-ই নিজেরা নিজেরা। শাকিব আমার স্বামী, আবার যাঁদের সঙ্গে শাকিবের সমস্যা হয়েছিল তাঁরাও আপন। এ কারণে শাকিবের পক্ষ নিয়ে পরিচালক-কলাকুশলীদের বিরুদ্ধে কিংবা তাঁদের পক্ষ নিয়ে শাকিবের বিরুদ্ধে যাওয়ার কোনো জায়গা আমি পাইনি। যার কারণে ওই সময়টায় আমি কোনো কথা বলিনি, বলতেও চাইনি। আমি শুধু চেয়েছি পরিবারের মতো সবাই মিলেমিশে থাকতে।

সামনে নতুন খবর কী আছে?

নতুন খবর হলো, নিজেকে প্রস্তুত করে যেকোনো সময় কাজে নেমে পড়তে পারি। সেই প্রস্তুতিই চলছে।

বুলবুল বিশ্বাসের ‘রাজনীতিছবিটি আগামী ঈদুল ফিতরে মুক্তির কথা শোনা যাচ্ছে কেমন লাগছে?

আমি খুব খুশি এটা জেনে। প্রায় এক বছর পর একসঙ্গে আমার আর শাকিবের ছবি দর্শক প্রেক্ষাগৃহে দেখতে পাবেন। গত বছর ঈদুল আজহায় আমার কোনো ছবি মুক্তি পায়নি। কিন্তু সেই সময় ঈদের চেয়েও বড় আনন্দ আমার জন্য অপেক্ষা করছিল, আমাদের ছেলে আব্রাম। এবারের ঈদটা আমার জন্য অন্য রকম। আমার ছবি, আমার সন্তান—এই দুই আনন্দ দর্শকের সঙ্গে ভাগাভাগি করতে চাই।

সাক্ষাৎকার: শফিক আল মামুন

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

উপরে