মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৮ | ৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষনের অভিযোগ

প্রকাশের সময়: ৮:২১ অপরাহ্ণ - বৃহস্পতিবার | জুন ১, ২০১৭


নাটোর প্রতিনিধি:
নাটোরের গুরুদাসপুরে এক সন্তানের জননী মৌসুমী বেগমকে বিয়ের প্রলোভনে একাধিকবার ধর্ষন করেছে প্রতিবেশী সবুজ এমন অভিযোগ তুলে বিয়ের দাবিতে প্রেমিক সবুজের বাড়ীতে পাঁচদিন ধরে অনশন করছে ওই নারী। দীর্ঘ ৫ দিনের অনশনে মৌসুমী বেশ অসুস্থ হয়ে পড়লেও সবুজ বা তার পরিবারের পক্ষ থেকে কোন সাড়া মিলেনি। বৃহস্পতিবার বেলা ২টা পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী মৌসুমীর জায়গা হয়নি প্রেমিকের ঘরে।
স্থানীয় সুত্রে জানাযায়, উপজেলার খুবজীপুর ইউনিয়নের পিপলা নতুনপাড়ার দিনমজুর মিলনের স্ত্রী এক সন্তানের জননী মৌসুমী গত রোববার থেকে একই গ্রামের ওসমান আলীর ছেলে প্রেমিক সবুজের (৩০) বাড়ীতে অনশন করছে। এঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। মৌসুমীর অণশন দেখতে ভিড় করছে এলাকার উৎসুক মানুষ।
অণশনরত মৌসুমী জানান, সবুজের সাথে তার চার বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এক পর্যায়ে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিলে তাদের মধ্যে দৈহিক সম্পর্ক গড়ে উঠে। গত রোববার ইফতারের কিছুক্ষণ পর তার স্বামী বাড়িতে না থাকার সুযোগে সবুজ তার বাড়ীতে গিয়ে তাকে সব কিছু গুছিয়ে নিতে বলে। সে তার স্বামীর গচ্ছিত ৫০হাজার টাকা, তার কাছে থাকা ১০হাজার আর গলার ও কানের স্বর্ণের গহনা নিয়ে সবুজের সাথে চলে আসে।
মৌসুমি বলেন, প্রেমিকের কথা মতো স্বামীর ঘর ছেড়েছেন তিনি। কিন্তু সবুজের বাড়িতে উঠলে তার বাবা-মা’র চাপে আমাকে স্বামীর বাড়ি ফিরে যাতে বলে। না যেতে চাইলে মারপিট করা হয়। একপর্যায়ে ঘরে তালা লাগিয়ে অন্যত্র চলে গেছেন তারা। “ তারিয়ে দিলে আমার স্বামীও নিবে না আমি কোথায় যাব। আত্মহত্যা ছাড়া আর কোন পথ নেই।”
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম দোলন জানান, বিষয়টি জেনেছি। স্থানীয়ভাবে সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে।
গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দিলীপ কুমার দাস বলেন, এ ব্যাপারে অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উপরে