বুধবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৮ | ২রা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

শিক্ষা অফিসার কর্তৃক সংবাদিককের উপর হয়রানির অভিযোগ

প্রকাশের সময়: ৭:২৬ অপরাহ্ণ - বুধবার | জুন ৭, ২০১৭

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডিঃ
রিপন আলি রকি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ: একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তথ্য চাইতে গিয়ে প্রধান শিক্ষক ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার কর্তৃক সংবাদিককে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। এর প্রতিকার চেয়ে জেলা প্রশাসকের নিকট আবেদন করেছেন হয়রানীর শিকার ঐ সাংবাদিক। ঘটনাটি ঘটেছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলায়।
গত ৪ জুন দৈনিক খবর পত্র পত্রিকার জেলার আঞ্চলিক প্রতিনিধি সাংবাদিক আমিনুলের স্বাক্ষরিত জেলা প্রশাসক বরাবর একটি আবেদনে বলা হয়েয়ে যে, গোমস্তাপুর উপজেলার পার্ববর্তীপুর ইউনিয়নাধীণ বড় দাদপুর কেএএম বহু মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী গ্রন্থগারিক ও নৈশ প্রহরী পদে নিয়োগের জন্য দৈনিক চাঁপাই দর্পণ পত্রিকায় গত ১৭এপ্রিল ২০১৭ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয় এবং বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের ২০দিনের মধ্যে আবেদন করতে বলা হয়। সময় অতিবাহিত হরার পর সরকারী নিয়ম বর্হিভূত ভাবে নিয়োগের চেষ্টা চলছে এমন অভিযোগের ভিত্তিতে তথ্য সংগ্রহে  প্রধান শিক্ষক আখতারুলের সাথে যোগযোগ করলে তিনি কোন তথ্য দিবেন বলে জানান।
এ ঘটনায় আমি গোমস্তাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারে পরামর্শক্রমে বাংলাদেশের তথ্য অধিকার আইনের ফরমে তথ্যের জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোসা: ফেরদৌসী বেগমের নিকট আবেদন জমা দিলে তিনি আবেদনটি ছুঁড়ে ফেলেন এবং অশ্লীল ভাষায় আমাকে গালিগালাজ করে এবং চিৎকার করে বলে আমি কোন তথ্য দিবনা।
উল্লেখ্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোসা: ফেরদৌসী বেগম গোমস্তাপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসে যোগদানের পর থেকে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের সাথে যোগসাজস করে নিয়োগের ক্ষেত্রে দীর্ঘদিন যাবত ব্যাপক অনিয়ম ও দূর্নীতি করে আসছেন বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক অভিযোগ রয়েছে। এলকাবাসীর সূত্রে জানা গেছে ঐ শিক্ষা অফিসারের খুঁটির জোর খুব শক্ত হওয়ায় তিনি নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে যা ইচ্ছা তাই করে চলেছেন।

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

উপরে