বুধবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৮ | ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

খাগড়াছড়িতে ভারি বৃষ্টিতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত সহশ্রাধিক পরিবার পানি বন্দী

প্রকাশের সময়: ১:২৩ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার | জুন ২০, ২০১৭

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:
বিপ্লব তালুকদার-খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: দিনভর ভারি বর্ষন ও পাহাড়ি ঢলে পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ির নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে শতশত ঘরবাড়ি ফসলী জমিমাছের ঘের পানির নিচে তলিয়ে গেছে।
সোমবার ভোর থেকে টানা বর্ষণে খাগড়াছড়ি জেলা সদরের মুসলিমপাড়া, গঞ্জপাড়া, মেহেদীবাগ, মিলনপুর, সাতভাইয়া পাড়া মুখ, খবংপুড়িয়া, শান্তিনগর, অর্পণা চৌধুরী পাড়া, কল্যাণপুর সহ নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এতে করে সহ¯্রাধিক পরিবার পানি বন্দী হয়ে পড়েছেন।

পানিবন্দী মানুষেরা শিশু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও মুসলিমপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রসহ আত্মীয় স্বজনের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন। বন্যার পাশাপাশি টানা বর্ষণের ফলে খাগড়াছড়ি জেলা সদর সহ বিভিন্ন উপজেলায় পাহাড় ধসের শঙ্কা রয়েছে।

পাহাড়ী ঢল নামতে শুরু করায় নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। খাগড়াছড়ি শহরের চেঙ্গী নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় আশপাশের গ্রাম ও গ্রামীণ সড়ক পানির নিচে তলিয়ে গেছে।

খাগড়াছড়ি পরিবেশ রক্ষা আন্দোলনের সভাপতি প্রদীপ চৌধুরী বলেন, অতীতে কখনো খাগড়াছড়িতে একদিনের বৃষ্টিতে বন্যা হওয়ার নজির নাই।
সম্প্রতি সময়ে খাগড়াছড়ির বিভিন্ন খাল, ছড়া ও জলাশয় দখল হয়ে যাওয়ায় কয়েক ঘন্টার বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা ও বন্যা হচ্ছে। এর মাধ্যমে প্রকৃতি আমাদের সর্তক সংকেত দিচ্ছে বড় ধরণের বিপর্যয়ের। দখলদারদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।
খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মো: রাশেদুল ইসলাম জানান, বন্যা দূর্গত যারা বিভিন্ন বিদ্যালয়ে আশ্রয় নিয়েছেন তাদের শুকনো খাবার, বিশুদ্ধ পানিসহ প্রয়োজনীয় ত্রাণ সরবরাহ করা হবে। বৃষ্টি অব্যাহত থাকায় পাহাড় ধসের শঙ্কা থাকায় ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে বসবাসকারীদের সরিয়ে আনতে প্রশাসন তৎপর রয়েছে।

উপরে