বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

নড়াইলে বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ শেখের ৪৬তম শাহাদাত বার্ষিকী পালিত

প্রকাশের সময়: ৩:২২ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার | সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৭

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:

আসাদ রহমান, নড়াইল প্রতিনিধি: বিভিন্ন আয়োজনে নড়াইলে বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ শেখের ৪৬তম শাহাদাত বার্ষিকী পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার(৫ সেপ্টেম্বর) বীরশ্রেষ্ঠ নুর মোহাম্মদ ট্রাষ্টের আয়োজনে বেলা সাড়ে  ১১ টায় নড়াইল সদর উপজেলার চন্ডিবরপুর ইউনিয়নের নূর মোহাম্মনগরে তার স্মৃতিস্তম্ভে বেলা পুষ্পমাল্য অর্পণ, রাষ্ট্রীয় সন্মান গার্ড অব অনার প্রদান এবং র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া বীরশ্রেষ্ঠ নুর মোহাম্মদ স্মৃতি যাদুঘর ও গ্রন্থাগারে কোরআনখানি, দোয়ামাহফিল ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বীরশ্রেষ্ঠ নুর মোহাম্মদ ট্রাষ্টের সভাপতি ও জেলা প্রশাসক  মোঃ এমদাদুল হক চৌধুরী, পুলিশ সুপার সরদার রকিবুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক( সার্বিক) কামরুল আরিফ, নড়ইল সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সালমা সেলিম,  জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার এম এম গোলাম কবীর, ডেপুটি কমান্ডার এ্যাডভোকেট এস এ মতিন, মুক্তিযোদ্ধা ও জেলা পরিষদ সদস্য সাইফুর রহমান হিলু, ট্রাষ্টের সদস্য সচিব আজিজুর রহমান ভ’ইয়া, সাংবাদিক কাজী হাফিজুর রহমানসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ শেখ ১৯৫৯ সালে  পূর্ব পাকিস্তান রাইফেলস (ইপিআর) বর্তমানে ‘বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ’ (বিজিবি)তে যোগদান করেন । ১৯৭১ সালে যশোর অঞ্চল নিয়ে গঠিত ৮নম্বর সেক্টরে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন। স্বাধীনতা যুদ্ধে ১৯৭১ সালের ৫ সেপ্টেম্বর যশোর জেলার গোয়ালহাটিতে পাকবাহিনীর সাথে সম্মুখ যুদ্ধে শহীদ হন। যুদ্ধ চলাকালে সহযোদ্ধা নান্নু মিয়া গুরুতর আহত হলে নূর মোহাম্মদ শেখ হাতে এলএমজি এবং আহত নান্নু মিয়াকে কাঁধে নিয়ে শত্রু পক্ষের দিকে গুলি ছুঁড়তে থাকেন। পাকবাহিনীর মর্টারের আঘাতে তার হাঁটু ভেঙ্গে যায়। তবুও থেমে থাকেনি বাংলার অকুতভয় এই বীর যোদ্ধা, শত্রু পক্ষকে পরাস্ত করতে তিনি একাই চারিদিকে গুলি চালাতে থাকেন এবং সহযোদ্ধাদের নিরাপদে পাঠিয়ে দেন। যুদ্ধের একপর্যায়ে তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। শত্রপক্ষ বেয়োনেট দিয়ে তার চোখ উপড়ে দেয়, বেয়োনেট দিয়ে খুচিয়ে খুচিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। যশোর জেলার সিমান্তবর্তী শার্শা উপজেলার কাশিপুর গ্রামে তাকে সমাহিত করা হয়। দেশ মাতৃকার স্বাধীনতা রক্ষায় আত্মত্যাগের স্বীকৃতি স্বরূপ ‘বীরশ্রেষ্ঠ’ খেতাবে ভুষিত হন। নূর মোহাম্মদ ১৯৩৬ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি নড়াইল সদর উপজেলার মহিষখোলা গ্রাম বর্তমানে নূর মোহাম্মদনগরে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম মোহাম্মদ আমানত শেখ এবং মাতা জেন্নাতুন্নেছা। বর্তমানে তার স্ত্রী বেগম ফজিলাতুন্নেসা, ছেলে গোলাম মোস্তফা কামাল ও তিন মেয়ে হাসিনা বেগম, সুফিয়া খাতুন ও রোকেয়া বেগম রয়েছে।
২০০৮ সালে প্রায় ৬৩ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ ল্যান্স নায়েক নূর মোহাম্মদ শেখ গ্রন্থাগার ও স্মৃতি জাদুঘর’ নির্মাণ করা হয়েছে এবং ৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে নূর মোহাম্মদের গ্রামের বাড়িতে একটি স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণ করা হয়েছে।

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

উপরে