শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৭ | ২রা পৌষ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

ঝিনাইগাতীতে সবজি চাষে কৃষকের মুখে হাসি

প্রকাশের সময়: ৩:০২ অপরাহ্ণ - বৃহস্পতিবার | ডিসেম্বর ৭, ২০১৭

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

গোলাম রব্বানী-টিটু, (শেরপুর)সংবাদদাতা:

শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতী উপজেলায় সবজি চাষ করে কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে । সীমান্তবর্তী এই উপজেলায় ৭ টি ইউনিয়নের প্রায় সকল জায়গায় কম বেশী সবজির চাষ হয়ে থাকে এর মধ্যে উপজেলার,হলদিগ্রাম,সন্ধ্যাকুড়া,ফাকরাবাদ,ভারুয়া,বনগাও,তিনআনী,টেংরাখালী,বনকালী পাগলারমুখ এলাকায় এবার শীতকালীন সবজির বাম্পার ফলন হয়েছে । মৌসুমের শুরুতে যে সব সবজি বাজারে আশা শুরু করেছে এর মধ্যে জালিকুমড়া,মিষ্টিলাউ,চিচিংগা, শীতলাউ ও করলা সহ অন্যান্য শাকসবজি দেদারছে বিক্রি ও আমদানী হচ্ছে । হলদিগ্রাম বনগাও ,টেংরাখালী ও সন্ধ্যাকুড়া সবজির জন্যে বিখ্যাত । প্রতিদিন সকালে পাইকাররা সবজি ক্রয় করার জন্যে ভিড় করে এই সমস্ত এলাকায় । কৃষকরাও ন্যায্য মূল্য পেয়ে বেজায় খুশি । এখান থেকে সবজি কিনে ঢাকা সহ বিভিন্ন এলাকায় রপ্তানী করা হচ্ছে । সবজি চাষি আনোয়ার,জাহাঙ্গির মিয়া জানায়,ধানের চেয়ে এবার সবজি চাষে ভালো লাভ হয়েছে । বরবটি ২৫শতাংশ জমিতে আবাদ করে ৭মণ বিক্রি হয়েছে, আরো বিক্রি হবে । এক মণ বরবটির দাম ১৬শ টাকা খুচড়া ৫০টাকা কেজি বিক্রি হয়েছে । বাজরে ন্যায্য মূল্য পেয়ে কৃষকরা অত্যান্ত খুশি । অন্যান্য সবজির দামও বাজারে ভালো যা ধানের চেয়ে দিগুন মূল্য পাচ্ছেন কৃষকরা । উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনূল ইসলাম বাদশা জানান,এ উপজেলার ২/৩টি ইউনিয়নে প্রচুর সবজির চাষ হয় । স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে দেশের অন্যান্য জায়গায় রপ্তানী করা হয় এ সবজি । কৃষি সম্প্রস্রান অধিদপ্তর সবজি চাষে কৃষকদের আগ্রহী করে তুললে এই এলাকা সবজির উপজেলা হিসাবে আখ্যায়িত হবে । উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আ: আওয়াল জানায়,আমরা সবজি চাষে কৃষকদের আগ্রহী করে তুলার জন্যে মাঠ পর্যায়ে এ দপ্তরে নিয়োজিত লোকবল কাজ করে যাচ্ছে । আগামীতে সবজি চাষে কৃষকের সংখ্যা আরো বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে ।


আর্কাইভ

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

উপরে