মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৮ | ১১ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

প্রাচীন যুগে রাজাদের আকর্ষিত করার জন্য রানীরা যা যা কাজ করতেন তা জানলে আপনি চমকে উঠবেন…

প্রকাশের সময়: ৪:৩৬ অপরাহ্ণ - শুক্রবার | মার্চ ২৩, ২০১৮

প্রাচীন যুগে রাজাদের- এখনকার দিনে ধকল ও চাপ এত প্রভাব বিস্তার করেছে যে, এর প্রভাবগুলি মুখ ও শরীরের উপর স্পষ্টভাবে দৃশ্যমান।

এই দ্রুত বিন্যস্ত জীবন প্রধান কারণ, আপনি ৩৫ বছরের মতন দেখতে লাগছেন ২৫ বছর বয়সেই। এটি একটি পুরুষ বা একটি মহিলার বুড়ো হওয়ার প্রত্যেকের উপর একটা অ্যাপেনডাজে বিস্তার করেছে।

যে কোনও ক্ষেত্রে, আপনি আপনার বয়স্কদের মুখে বাড়িতে শুনেছেন যে, মধ্যযুগীয় সময়ে রানীরা অত্যন্ত সুন্দরী এবং তাদের শরীর সুগঠিত ছিল। তারা বয়স বাড়া সত্ত্বেও তাদের যৌবন কম হতো না।

তাদের অভাবনীয় সুন্দর ত্বক আর মোটা চুল ছিল। তারা সব প্রাকিতিক জিনিস ব্যবহার করতো যা ছিল সব সমস্যার উত্তর। এই কারণে রানীদের পুরু দীর্ঘ চুল ছিল।

আপনিও যদি অমন সুন্দর হতে চান তাহলে এই সহজ উপায়গুলো ব্যবহার করতে পারেন।

রাজারা রানীদের দ্বারা মুগ্ধ হতেন –

রানীদের সৌন্দর্যের সম্পর্কে কথা বলা হলে বলা হয় যে চিতোরগড়ের রানী পদ্মাবতি এত সুন্দরী ছিলেন যে, একজন মুসলিম শাসক আলাউদ্দিন খিলজি চিতোড়গড়কে আক্রমণ করেছিলেন শুধু তাকে পাওয়ার জন্য।

তাদের সৌন্দর্যের রহস্য –

ধারণা করা হয় যে রানীর সুশৃঙ্খল শারীরিক গঠন এবং সুন্দরী রূপ রাজাদের আকর্ষণ করতো। এই যত্ন নেওয়ার জন্য রানীরা বৈদিক শাস্ত্র প্রদত্ত ঔষধ গ্রহণ করতেন।

শরীর সুগঠিত রাখার উপায় –

রাজ বৈদ্যরা রানীদের এই ওষুধ গুলো ব্যবহার করতে বলতেন যাতে তাদের যৌবন বজায় থাকে। এগুলি সাধারণ মানুষ যেমন আপনি আমিও এই উপায় ব্যবহার করতে পারে দৈনন্দিন জীবনে।

গোলাপ জল দিয়ে স্নান –

রানীরা স্নানের জলে গোলাপের পাপড়ি ব্যবহার করতেন, যা তাদের চামড়ার উপর প্রাকৃতিক উজ্জ্বলতা আনতে সাহায্য করত, যখনই রাজা একজন রানীকে স্পর্শ করতেন তখন তার মনে হত যে কোন ভেলভেটর মতন নরম কিছু স্পর্শ করছেন। আর এটাই রাজাদের পাগোল করে তুলতো।

মদ দিয়ে বানানো হত ফেস প্যাক –

মদের (বিয়ার) মধ্যে দুধ, ডিমের সাদা অংশ এবং লেবুর রস মেশানো প্যাক ব্যবহার হতো মৃত চামড়া এবং কঠোরতা অপসারণের জন্য যা চামরা নরম করে।

আভাকাডো মাস্ক –

শরীরের দাগ সরাবার জন্য এবং মুখ থেকে কলুষতা সরানোর জন্য আভাকাডো ফেসপ্যাক ব্যবহার করা হতো। এ ছাড়াও, আভাকাডো বাঁকানো শরীর পেতে সাহায্য করতো।

আখরোট বয়সের ছাপ দূর করে –

আপনি জানেন কি যে, তারা দৈনিক আখরোট এবং গাজর ব্যবহার করতো তাদের শারীরিক অঙ্গগুলি ভালো রাখার জন্য, বিশেষ করে এটি শরীরকে সুস্থ ও বক্র শরীর গঠনে সাহায্য করে। বিশ্ব স্বাস্থ্য ওয়েবসাইট অনুযায়ী তাই তখন কেউ তাদের বয়স নির্ধারণ করতে পারত না।

লম্বা মোটা চুল –

সুন্দর এবং স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুল সবসময় সৌন্দর্যের আসল প্রতীক। প্রাচীনকালে আমাদের রানীরা তাদের চুলের যত্ন নিতে মধু এবং জলপাই তেল ব্যবহার করতেন।

গোলাপের সুবাস –

রানীরা তাদের ত্বকের শুষ্কতা অপসারণের জন্য গোলাপের সুগন্ধি ব্যবহার করত। এটা নিশ্চিত যে, এর জন্য তারা সারা দিন স্বর্গীয় গন্ধ উপভোগ করত।

সাস্নের জন্য গাধার দুধ –

সেই সময়ে রানীরা মধু এবং জলপাই তেল গাধার দুধের সাথে মিশ্রিত করতেন। দুধে এন্টি-ফিডিং প্রোডাকশন থাকে যা বার্ধক্য বৃদ্ধির কারণকে হ্রাস পায়।

bdinfobiz limited

আর্কাইভ

উপরে