বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৮ | ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

নাইক্ষ্যংছড়িতে সন্ত্রাসী কর্তৃক তামাক চাষীকে ফের অপহরণ

প্রকাশের সময়: ৬:১১ অপরাহ্ণ - বুধবার | এপ্রিল ১৮, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:

লামা (বান্দরবান) প্রতিনিধি : বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় আবারও সাইফুল ইসলাম (১৯) নামের এক তামাক চাষীকে অপহরণ করেছে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। মঙ্গলবার (১৭এপ্রিল) দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার সময় দোছড়ি ইউনিয়নের বাঁকখালী মৌজার লংগদুর মুখ, মামা-ভাগিনার ঝিরি এলাকার তার তামাক ক্ষেতের খামার বাড়ি থেকে অপহরণ করে নিয়ে যায় সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা । প্রত্যক্ষদর্শী অপহৃত যুবক সাইফুল ইসলামের পিতা নুর মোহাম্মদ জানান, রাতে খাবার খেয়ে তারা প্রতিদিনের ন্যায় তামাক ক্ষেতের খামার বাড়িতে ঘুমিয়ে পড়ছিল। রাত ১২টা ৩০ মিনিটের সময় ৭/৮ জনের সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা এসে খামার ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে কোন কথা বলার আগেই এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করে এবং হাত বেঁধে খামার ঘর থেকে পিতা-পুত্র দুজনকে গহীন জঙ্গলে নিয়ে যায়। কিছু দূর নেওয়ার পর অপহৃত যুবকের পিতা নুর মোহাম্মদকে ছেড়ে দিলেও ছেলে সাইফুল ইসলামকে ধরে নিয়ে যায়। ঐ সময় সন্ত্রাসীরা নুর মোহাম্মদকে বলে দেয় ছেলেকে জীবিত ফেরত পেতে হলে মুক্তিপনের জন্য টাকা জোগাড় করে রাখতে হবে। তিনি ফেরত এসে বিষয়টি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুল্লাহকে জানালে তিনি নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় ঘটনাটি অবহিত করেন এবং অপহৃত যুবকের পিতাও স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে ঘটনাটি নাইক্ষ্যংছড়ি থানা পুলিশকে জানান। এ বিষয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আলমগীর শেখ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে পুলিশের একটি টহল দলকে পাঠান এবং সম্ভাব্য স্থানে অভিযান পরিচালনা করছেন। তিনি আরো বলেন, পুলিশের পাশাপাশি নাইক্ষ্যংছড়িস্থ ৩১ বিজিবির একটি টহল দলও অপহৃতকে উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা করছেন। উল্লেখ্য, গত ২০ জানুয়ারী একই গ্রাম থেকে ৪ তামাক চাষীকে অপহরণ করেছিল। অপহরণের দীর্ঘ ছয়দিন পর চার তামাক চাষীকে মুক্তিপনের বিনিময়ে ছেড়ে দিয়েছিল। এছাড়া বিগত বছরগুলোতে দোছড়ি ইউনিয়ন থেকে এক ডজনের অধিক তামাক চাষী ও কৃষককে অপহরণ করেছিল সন্ত্রাসীরা। বর্তমানে সন্ত্রাসীদের আতংকে এলাকার লোকজন ও ব্যবসায়ীরা অতিষ্ট হয়ে পড়েছে।

উপরে