রবিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৮ | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

সারিয়াকান্দিতে ৩মাসেও ভিজিডি কার্ডের চাল পায়নি ২৬৫জন

প্রকাশের সময়: ৭:৩৭ অপরাহ্ণ - বুধবার | এপ্রিল ১৮, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি: 
আব্দুস সালাম বকুল, বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলার কামালপুর ইউনিয়নের ২৬৫জন দুস্থ মহিলা ভিজিডি কর্মসূচীর আওতায় ৩মাসের বরাদ্দকৃত চাল পায়নি। ফলে দুস্থ পরিবারগুলো তাঁদের প্রাপ্য সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। অন্য দিকে সুবিধাভোগী পরিবারগুলো না খেয়ে দিনকালতিপাত করছে। অভিযোগ উঠেছে কামালপুর ইউপি চেয়ারম্যান হেদাইদুল ইসলাম ভিজিডির গত ১৭সালের অক্টোম্বর/নভেম্বর ও ১৮ সালের ফেব্রুয়ারী মাসের বরাদ্দকৃত চাল গুদাম থেকে তুলে কালোবাজারে বিক্রি করে দিয়েছে।
উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিস সূত্রে জানা যায়, সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচীর আওতায় গ্রামীন দুস্থ ও গরীব মহিলাদের খাদ্য সহায়তা প্রদানের লক্ষে ভিজিডি কর্মসূচী চালু করে। সুবিধাভোগী হিসাবে তালিকাভুক্ত গরীব দুস্থ মহিলারা প্রতি মাসে ৩০কেজি করে চাল পেয়ে থাকে। চলতি অর্থবছরে উপজেলার কামালপুর ইউনিয়নে ২৬৫জন গরীব দুস্থ মহিলা গত ১৭ সালে অক্টোম্বর ও নভেম্বর এবং ১৮ সালের ফেব্রুয়ারী ৩ মাসের বরাদ্দকৃত চাল এখনও পায়নি। উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের অফিসে খোজ নিয়ে জানা যায়, কামালপুর ইউপি চেয়ারম্যান হেদাইদুল ইসলাম অত্র অফিস হতে ডিও গ্রহন করে গত ২১ জানুয়ারী ঐ ৩মাসের বরাদ্দকৃত ২৩.৮০০ মেট্রিকটন চাল খাদ্য গুদাম থেকে উত্তোলন করে আজ অবধি তা সুবিধাভোগীদের মাঝে বিতরন করেনি। ঐ ইউনিয়নের রিলিফ অফিসার ও উপজেলা সমবায় অফিসার সালাহ উদ্দিন সিদ্দিক বলেন, তিনি গত জানুয়ারী মাসে যোগদান করেছেন। তাই আগের ঘটনা তিনি জানেন না তবে সুবিধাভোগীরা ৩ মাসের চাল পায়নি বলে তার কাছে অভিযোগ করেছে। এব্যাপারে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নাজনীন আক্তার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন কামালপুর ইউপি চেয়ারম্যান হেদাইদুল ইসলাম গত ৩ মাসের বরাদ্দকৃত চাল সুবিধাভোগীদের মাঝে বিতরন না করায় তাকে কারন দর্শানো হয়েছে। এবিষয়টি নিয়ে কামালপুর ইউপি চেয়ারম্যান হেদাইদুল ইসলামের সাথে কথা বলার জন্য তার মুঠোফোনে ০১৭২২-১৩৫১০৮ নাম্বারে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

 

উপরে