সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

নাসিরনগরে খতমে রিসালাত শীর্ষক ইসলামী মহাসম্মেলন অনুষ্ঠিত

প্রকাশের সময়: ৯:৪৪ অপরাহ্ণ - শুক্রবার | এপ্রিল ২০, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া :: জেলার নাসিরনগর উপজেলা সদরে অবস্থিত জামিয়া রমিজিয়া ছিদ্দিকিয়া মাদ্রসা মাঠে ২০ এপ্রিল ২০১৮ রোজ : শুক্রবার সকাল ৮ ঘটিকা হতে ১২ ঘটিকা পর্যন্ত কওমী ওলামা পরিষদের উদ্যোগে শানে রিসালত ও খতমে নবুয়্যত ইসলামী মহাসম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত মহাসম্মেলনে সভাপতি মন্ডলী হিসাবে উপস্থিত ছিলেন আল্লামা মরিরুজ্জামান সিরাজী, মহাপরিচালক, জামিয়া সিরাজিয়া দারুল উলুম ভাদুঘর ও আল্লামা মুফতী মোবারক উল্লাহ, প্রিন্সিপাল জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদ্রাসা ব্রাহ্মণবাড়িয়া। প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন খতিবে আজম আল্লামা নুরুল ইসলাম ওলীপুরী দাঃবাঃ সহ অন্যান্য ওলামায়ে কেরামগণ। প্রধান অতিথি আল্লামা নুরুল ইসলাম ওলীপুরী দাঃবাঃ তিনি প্রমাণ সহ উদাহরণ দিয়ে বলে মির্জা গোলাম আহমেদ কাদিয়ানী তার দুইটি বইয়ের একটি লিখেছেন যারা আমাকে নবী মানবে না তারা হবে জারজ সন্তান। অপর আরেকটি বইয়ে লিখেছেন যারা আমাকে নবী মানবে না তারা হবে শুকর। উক্ত সম্মেলনে প্রধান অতিথি সহ সকল বক্তাগণই তাদের বক্তব্যে আহমেদিয়া মুসলিম জামাত/কাদিয়ানীদের অমুসলিম ঘোষনার দাবী জানায়। বক্তারা বলেন সৌদি আরব, কুয়েত, কাতার, পাকিস্তান সহ অন্যান্য মুসলিম রাষ্ট্রগুলি কাদিয়ানীদের কাফের ও অমুসলিম ঘোষনা করেছে। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন আমাদের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ মন্ত্রী পরিষদের সদস্যগণ কেহই কাদিয়ানী নয়।

তারা সবাই কওমী মুসলমান বিধায় কাদিয়ানীদের অমুসলিম ঘোষনা করতে বাধা কোথায়। এ সময় মঞ্চ থেকে শ্লোগান দেয় কাদিয়ানীরা কাফের, কাদিয়ানীদের অমুসলিম ঘোষনা কর, করতে হবে। কাদিয়ানীরা নবী করিম (সাঃ) কে মানে না,তারা মির্জা গোলাম আহমেদ কাদিয়ানী ওরুফে শয়তানকে নবী স্বীকার করে। যে বাথরুমে পড়ে মৃত্যুবরণ করেছে। আমাদের নবীর পিতার নাম আব্দুল্লাহ,মায়ের নাম আমেনা এবং ইমাম মেহেদীরও বাবার নাম আব্দুল্লাহ ও মায়ের নাম আমেনা হবে। অথচ গোলাম আহমেদের কাদিয়ানীর মায়ের নাম আমেনা বা বাবার নাম আব্দুল্লাহ ছিল না। সে কিভাবে ইমাম মেহেদী হলো। বক্তরা বলেন আমরা তো হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্ট্রানকে বলি না তোমরা মুসলমান হও বা তোমাদের ধর্ম ত্যাগ কর। তারা তাদের ধর্ম পালন করে তাদের ধর্ম মতে। অথচ মুসলমান হয়ে বেদাতী কথাবার্তা বলে নিজেকে মুসলমান দাবী করা চলবে না। বক্তরা সরকারের কাছে জোর দাবী জানান কাদিয়ানীদের অমুসলিম ঘোষনার জন্য। বক্তরা বলেন কাদিয়ানীরা ফরম বিতরন করে সহজ সরল মুসলমানকে তাদের অনুসারী করার চেষ্টা করছে। যা প্রতিহত করতে হবে। বক্তরা কাদিয়ানীদের উদ্দেশ্য করে বলেন, তোমরা বেদাতী পথ ছেড়ে সঠিক পথে ফিরে এস। আমরা তোমাদের গ্রহণ করে নিব। বক্তরা বলেন। তাদের দাবী মানা না হলে আগামীতে বড় ধরনের আন্দোলনের পথ বেছে নিবেন তারা। তবে এ বিষয়ে কোন তারিখ ও সময় ঘোষনা করেনি। মাওলানা সাজিদুর রহমানের মোনাজাতের মধ্য দিয়ে সম্মেলনের সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়। উক্ত সম্মেলনে প্রায় ৩ হাজার মুসল্লী উপস্থিত ছিল। সভা শেষে মুসল্লীগণ শন্তিপূর্ণ ভাবে নিজ নিজ গন্তব্য স্থলে চলে যায়। সম্মেলনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনার সংবাদ পাওয়া যায়নি। সম্মেলন চলাকালে প্রশাসন ছিল তৎপর। এ সময় সম্মেলনের আশপাশ এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি মোতায়েন ছিল।

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

উপরে