বুধবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৮ | ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

ঝড়ে উড়ে গেছে বিদ্যালয়: অনিশ্চিত পরীক্ষা

প্রকাশের সময়: ৭:৫৭ অপরাহ্ণ - রবিবার | এপ্রিল ২২, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর,ব্রাক্ষনবাড়িয়াঃ জেলার নাসিরনগরে কালবৈশাখী ঝড়ে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের টিনের চালসহ স্কুলের বেড়া উড়ে গেছে। আগামীকালের ১ম সাময়িক পরীক্ষা নিয়ে অনিশ্চিয়তায় পড়েছে বিদ্যালয়টির ২৩১ জন কোমলমতি শিক্ষার্থী।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,২১ এপ্রিল শনিবার সকালে নাসিরনগর উপজেলার কুন্ডা ইউনিয়নের আন্দ্রাবহ আদর্শ গুচ্ছ গ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি কাল বৈশাখী ঝড়ে লন্ডভন্ড হয়ে যায়। স্কুল ঘরের টিনের চালাটি ২০০ মিঃ দুরে উড়িয়ে নিয়ে যায়।

স্থানীয় সূত্র ও ইউপি সদস্য তপন কুমার দাস জানায়, ২০০৯ সালে আন্দ্রাবহ আদর্শ গুচ্ছ গ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি স্থাপিত হয়। বিদ্যালয়ে ২৩১ জন ছাত্র-ছাত্রী আছে।
গতকালের ঝড়ে বিদ্যালয়টির টিনের চালও বেড়া উড়ে যায়। বিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র, অফিসের বই-খাতাসহ বিভিন্ন মালামাল ভিজে নষ্ট হয়ে যায়। এ ছাড়া বৈদ্যুতিক মিটার, খুঁটি, বিদ্যালয়ের আসবাব পত্রও ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

সারা দেশের মতো ওই বিদ্যালয়েও আগামীকাল প্রথম সাময়িক পরীক্ষা হবার কথা। কিন্তু আকস্মিক ঝড়ে উড়ে গেল ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের স্বপ্ন। খবর পেয়ে সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ইকবাল হোসাইন, স্থানীয় ইউপি সদস্য ও বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সাবেক সভাপতি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ফেরদৌসি বেগম বলেন, ঝড় আরম্ভ হওয়ার আগেই ছাত্রছাত্রীসহ বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ পাশের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। তাই বড় ধরনের কোন দূর্ঘটনা ঘটেনি। তিনি আরো বলেন, টিনের চালা বিশিষ্ট বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীরা নিরাপদ নয়। একটি পাকা ভবনের জন্য কয়েকবার প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। এখনো কোনো সাড়া মেলেনি।

এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসার উম্মে সালমা বলেন, আমি বিষয়টি জেনেছি। আগামীকাল ১ম সাময়ীক পরিক্ষা শিক্ষার্থীরা দিতে পারবে। আমি স্থানীয় ইউপি সদস্য সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের বলেছি একটি অস্থায়ী ঘরের ব্যবস্থা করার জন্য।

উপরে