বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৮ | ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

শেরপুরে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য দ্রব্যের বাজার ঊর্ধ্বমুখী

প্রকাশের সময়: ৬:১৮ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার | এপ্রিল ২৪, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:

(শেরপুর)সংবাদদাতাঃ শেরপুরের ঝিনাইগাতী, শ্রীবরদি, নকলা, নালিতাবাড়ি উপজেলার সদর বাজারে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য দ্রব্যের দাম হু-হু করে ঊর্ধ্বগামী হয়ে উঠছে। শহরের কাচা বাজার ঘুরে দেখা গেছে খুচরা বাজার মূল্য নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য দ্রব্যের দাম কেজি প্রতি ৫ থেকে ২০ টাকা হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। আজকের বাজার দর- কাঁচা মরিচ ৪০ টাকা, পিয়াজ ৩৫ টাকা , রসুন ৬০ টাকা , আলু ২০ টাকা, টাকা, করলা ৪০ টাকা , বেগুন ৬০ টাকা, শসা ২০ টাকা, লেবু ২০ টাকা টাকা থেকে ১৮ টাকা, গরুর মাংস ৪৮০ টাকা থেকে ৫০০ টাকা, খাসির মাংস ৬০০ টাকা থেকে ৬৫০ টাকা, বয়লার মুরগী ১৩০ টাকা থেকে ১৫০ টাকা, মাছ (ইলিশ) ৪০০ টাকা থেকে ৫০০ টাকা, রুই ২৫০ টাকা থেকে ৪৫০ টাকা, শাকসব্জি ক্রেতাদের নাগালের বাইরে চলে গেছে। পাঁট শাক,পুইশাক,লালশাক বাজার খুবই চড়া। বেগুন ৬০ থেকে ৭০ টাকায় কেজি ধরে বিক্রির কারণে সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে । গরুর বাজার হ্রাস পেলেও গোসতোর দাম নিয়ে মানুষ বিপাকে পড়েছে । জানা গেছে ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে গরু জবাই করে থাকে যার ফলে গোসতোর দাম হ্রাস পায় না । অথচ এই উপজেলায় বিভিন্ন জাতের সবজি উৎপাদনে ভান্ডার থাকা সত্যেও মুল্য বৃদ্ধি পাচ্ছে । এ ব্যাপারে ব্যবসায়ী আকবর আলী জানায় বেগুনের আমদানী না থাকার কারণে মুল্য বৃদ্ধি পেয়েছে । উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধরন সম্পাদক গোলাম মোস্তাফা জানান বাজার মনিটরিং জোরদার ও ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট তৈরী করতে না পারলে বাজার নিয়ন্ত্রনে রাখা সম্ভব । এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত প্রতিটি বাজারের প্রবেশ ধারে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য-সামগ্রী মূল্য তালিকা টানানো কথা থাকলেও কোথাও কোন তালিকা চোখে পড়েনি । বাজার মনিটরিং না করার ফলে দ্রব্য মুল্যের দাম হুহু করে বেড়েই চলছে।

উপরে