শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

ব্যবস্থাপনায় দক্ষতা সাফল্যের চাবিকাঠি

প্রকাশের সময়: ১১:২২ পূর্বাহ্ণ - রবিবার | জুন ১৭, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:

ব্যবস্থাপনায় দক্ষতা, কর্মজীবন আর ব্যক্তিজীবন- এ দুক্ষেত্রেই একজন ব্যক্তির সাফল্যের পরিচায়ক। ভালো ব্যবস্থাপনা জ্ঞান আপনার কর্মজীবনে উত্তরোত্তর সাফল্য যোগ করবে এবং ব্যক্তি আপনাকেও সকলের কাছে অধিক গ্রহণযোগ্য করে তুলবে। ব্যবস্থাপনায় দক্ষতা আনতে কী কী গুণ তবে থাকা চাই? তাই নিয়ে আলোচনা হবে এই লেখায়।

সমস্যার সমাধান করা

ইংরেজিতে এই জিনিসকে বলা হয় প্রবলেম সলভিং স্কিল, মানে সমস্যা সমাধানের দক্ষতা, এটা ভালো ব্যবস্থাপনা জ্ঞানের মূল কথাগুলোর মাঝে একটা। কোনো একটা কাজ সম্পন্ন করতে গিয়ে যদি সামনে আসা সমস্যাই না সমাধান করা গেলো, তবে তেমন ব্যবস্থাপকের সুনাম কমবে বৈ বাড়বে না। তাছাড়া প্রতিষ্ঠানে একটা সমস্যা তৈরি হয়ে তা সবার কাছে প্রকট হবার আগেই সেটি চিহ্নিত করা এবং সমাধানের পদক্ষেপ নেয়া- এগুলো একজন যোগ্য ব্যবস্থাপকের গুণ।

প্রেরণাদায়ক স্বভাব

জীবনে সাফল্যের স্বাদ প্রায়শই একা ভোগ করা যায় বটে, কিন্তু সব কয়টা কাজ কখনো একা করা যায় না। বিশেষ করে যখন আপনি একটা প্রতিষ্ঠানের অংশ, আপনার কর্মক্ষেত্রে আরো অনেকজন রয়েছে, তখন আপনারা একটা দল। একজন ভালো ব্যবস্থাপক তার কর্মীদের সবসময় অনুপ্রেরণা দেয় কাজে উন্নতি করতে। কাজ চাপিয়ে না দিয়ে একেকজনের দক্ষতাগুলো চিহ্নিত করা, সে অনুযায়ী তাদের কাজে লাগানো, ভালো কাজের যথাযথ প্রশংসা আর সম্মাননা দেয়া, আপনার ব্যবস্থাপনা ক্ষমতাকে কার্যকর করতে এই বিষয়গুলোও কিন্তু আবশ্যিক।

সময়ানুবর্তী হওয়া

নিজেও সময় মেনে চলুন আর আপনার কর্মীদেরও সেই শিক্ষা দিন। একদিকে বেশি সময় নিয়ে ফেললে আরেকদিকে অন্য কাজের বেলায় যে সময় কম পড়বে, সে খেয়াল থাকা চাই। কাজের ছোট ছোট ভাগের জন্য সময় নির্ধারিত করে দিন আর সেটা মেনে চলুন, যাতে পুরো কাজটা ঠিক সময়ে সম্পন্ন হয়।

যোগাযোগে দক্ষতা

কর্মক্ষেত্রে সবার সাথেই ভালো একটা যোগাযোগ বজায় না রাখতে জানলে আপনার ব্যবস্থাপনার অনেকটাই মাটি হবে। প্রতিষ্ঠানের কর্মীবৃন্দ এবং অন্যান্য ব্যবস্থাপক যারা আছেন, প্রতিষ্ঠানের বাইরে যাদের সাথে কাজের প্রয়োজন আছে, একজন ভালো ব্যবস্থাপক তাদের সকলের সাথেই যোগাযোগে থাকবে। সব ধরণের তথ্য জানার জন্য এটা জরুরি। তাছাড়া একটা প্রতিষ্ঠানের সব শ্রেণীর কর্মজীবীদের মাঝে সেতুবন্ধন হিসেবেও কাজ করতে হয় ব্যবস্থাপককে। কথার মাধ্যমে এবং লিখিত যোগাযোগ মাধ্যমেও দক্ষতা থাকা তাই আবশ্যক জ্ঞান।

নতুনত্বের পরখ

বাজারে কোন জিনিসটা নতুন আসছে, সেটা প্রতিষ্ঠানের জন্য কারা ভালো তৈরি করে দিতে পারে, কোন সেবাটা আগের চেয়ে ভিন্ন হবে, এইসব দিকে সজাগ দৃষ্টি থাকা চাই একজন দক্ষ ব্যবস্থাপকের। প্রতিযোগিতার বাজারে নতুন কিছুতে পিছিয়ে থাকলে পিছেই পড়ে থাকতে হবে, না নাম থাকবে আর না লাভ। তাই বর্তমান বাজারের হালচাল জেনে রাখা আর প্রতিষ্ঠানকে সে ব্যাপারে অবগত রাখা ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব।

মূলত এই দিকগুলোই আপনার ব্যবস্থাপনা দক্ষতার পরিচায়ক। এসব আপনার মাঝে আছে, বা তৈরি করে নেয়া সম্ভব মানে আপনার কর্মজীবনে বড় রকম সাফল্যের পথ অনেকটাই সহজ হয়ে যাওয়া।

ছবি- ইমেজেসবাজার.কম

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

উপরে