মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর, ২০১৮ | ২৯শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

মৌলভীবাজার বন্যার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে জেলা প্রশাসকের প্রেস ব্রিফিং

প্রকাশের সময়: ১২:১২ অপরাহ্ণ - সোমবার | জুন ১৮, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:
এ.এস.কাঁকন, মৌলভীবাজার: মৌলভীবাজার জেলায় বন্যায় ৫ উপজেলার ৩০ টি ইউনিয়ন ও দুটি পৌরসভার মোট ৪০ হাজার ২০০ পরিবার ক্ষতি গ্রস্থ হয়েছে। মৌলভীবাজারে বন্যায় আক্রান্তদের জন্য নগদ ৯ লাখ ৪০ হাজার টাকা, ৭শ ৪৩ মেট্রিকটন চাল বরাদ্ধ করা হয়েছে। মজুদ আছে ১ হাজার ৩৭ মেট্রিকটন চাল। আরো বরাদ্ধ হয়েছে ৫০০ মেট্রিকটন চাল ও নগদ ১০ লক্ষ টাকা। ৩ হাজার শুকনো খাবারের প্যাকেট বরাদ্ব পাওয়ার আশ্বাস মিলেছে। শহরের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য বিজিবির ৪ টি গাড়ি টহল দিচ্ছে। সিভিল সার্জনের নেতৃত্বে ৭৪ টি মেডিকেল টিম বন্যাকবলিত এলাকায় কাজ করছে। সেনা বাহিনীর ৪টি টিম বন্যা দূর্গত এলাকায় কাজ করছে। তারা পানি বন্দিদের উদ্ধারের কাজে ১৮টি স্পীডবোট ব্যবহার করছে। আরো সংগ্রহ করা হচ্ছে। ১৭ জুন (রবিবার) বিকেল ৫ টায় মৌলভীবাজার সার্কিট হাউসের মুন হলে জেলা প্রশাসনের এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান জেলা প্রশাসক মো: তোফায়েল ইসলাম।

প্রেসব্রিফিংয়ে জানানো হয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, সেনাবাহিনীর ২১ ইঞ্জিনিয়ার্স এর একটি ইউনিট, জেলা পুলিশ, ৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়ন, স্বাস্থ্যবিভাগ, ফায়ার সার্ভিস, বিএনসিসি, রেডক্রিসেন্টসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি সংস্থাও নিয়োজিত আছে। মৌলভীবাজারে বন্যায় আক্রান্তদের উদ্ধারে কাজ করছে, সেনাবাহিনী, বিজিবি ও পুলিশ। প্রেস ব্রিফিংয়ে আরো জানানো হয়, জেলায় স্বরণ কালের মনু ও ধলাই নদীর পানি বৃদ্ধির কারণে বন্যা প্রতিরক্ষা বাঁধের ২৫ স্থানে ভাঙংন দেখা দিয়েছে। ইতিমধ্যে বন্যাকবলিত এই জেলায় ৫০ টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। ৫৩৯০ জনকে উদ্ধার করে অশ্রয় কেন্দ্রে নেয়া হয়েছে।


মৌলভীবাজার সদরে অশ্রয় কেন্দ্রে খোলা হয়েছে ৬ টি। এই আশ্রয় কেন্দ্র গুলোর মধ্যে আছে সরকারি কলেজ, সরকারি মহিলা কলেজ, টেকনিকেল স্কুল এন্ড কলেজ, পলিটেকনিক ইনসট্রিটিউট, পিটিআই। এছাড়াও বেসরকারি উদ্যোগে আরো কয়েকটি খোলা হয়েছে যেখানে বিএনসিসি, স্কাউটসহ বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবীরা বন্যা কবলিত মানুষের জন্য কাজ করছেন। এছাড়াও দুর্গত এলাকা থেকে জরুরী যোগাযোগের জন্য একটি (০১৭২৪৬৮৫৭৮৪) হটলাইন খোলা হয়েছে। প্রেস ব্রিফিং এ আরো উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মৃণাল কান্তি দাস, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহ জালাল (বিপিএম), অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আশরাফুর রহমান। এদিকে আগামীকাল (সোমবার) মৌলভীবাজার আসবেন দূর্যোগ, ত্রাণ ও পূনর্বাসন মন্ত্রী মোফজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া। তিনি মৌলভীবাজার বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শন করবেন।

উপরে