বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৮ | ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

৩৬ হাজার লোককে প্রশিক্ষণ ও ড্রাইভিং লাইসেন্স দেবে সরকার

প্রকাশের সময়: ১০:৩১ অপরাহ্ণ - বুধবার | জুন ২৭, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:

সারাদেশে ৩৬ হাজার জনকে বিনামূল্যে ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ এবং ফ্রি মোটরযান ড্রাইভিং লাইসেন্স দেবে সরকার। স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম (সেইপ) প্রকল্প এবং বিআরটিসির যৌথ উদ্যোগে এ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। পেশাদার গাড়িচালক হতে আগ্রহীরা প্রশিক্ষণে অংশ নিতে পারবেন।

প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণের যোগ্যতা:

হালকা ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ পেতে আগ্রহীদের কমপক্ষে অষ্টম শ্রেণি পাস হতে হবে। বয়স হতে হবে ২০ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে। ভারি ড্রাইভিং এবং গাড়ি রক্ষণাবেক্ষণ প্রশিক্ষণের জন্য ২০ থেকে ৪৫ বছর বয়সীরা আবেদন করতে পারবেন। গাড়ি চালক হিসেবে মধ্যম লাইসেন্স থাকতে হবে ও মধ্যম লাইসেন্স এর মেয়াদ বা বয়স তিন বছর হতে হবে। উভয় কোর্সে প্রশিক্ষণ নিতে আগ্রহীদের শারীরিকভাবে সুস্থ হতে হবে এবং অবশ্যই জাতীয় পরিচয়পত্র থাকতে হবে।

বিনামূল্যে প্রশিক্ষণ, সঙ্গে ভাতা:

প্রশিক্ষণে অংশ নেওয়ার জন্য কোনো টাকা লাগবে না। বরং প্রশিক্ষণ চলাকালীন দৈনিক যাতায়াত ভাতা হিসেবে ১০০ টাকা পাবেন প্রশিক্ষণার্থীরা। সফলভাবে প্রশিক্ষণ শেষে ড্রাইভিং পরীক্ষা নেওয়া হবে। পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের সরকারি খরচে ড্রাইভিং লাইসেন্স দেওয়া হবে। দেশে এবং বিদেশে চাকরি প্রাপ্তিতেও সহযোগিতা করা হবে।

আবেদন ও বাছাই প্রক্রিয়া:

প্রশিক্ষণের দ্বিতীয় ব্যাচে অংশ নিতে চাইলে আগামী ৫ জুলাইয়ের মধ্যে নির্ধারিত প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে আবেদনপত্র জমা দিতে হবে।

বিআরটিসি মিরপুর প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ম্যানেজার (অপারেশন) জাহাঙ্গীর আলম জানান, আবেদনকারীদের কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করার জন্য নির্ধারিত বোর্ড থাকে। বোর্ড সদস্যরা বাছাই শেষে যারা প্রকৃতপক্ষে পেশাদার চালক হতে চায় তাদের নির্বাচন করেন। প্রশিক্ষণ নিতে আগ্রহী নারীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয়। পুরুষদের মধ্যে যোগ্যতা এবং সামর্থ্য বিবেচনায় যাদের জন্য প্রশিক্ষণ পেলে উপকার হবে তাদের আগে নির্বাচিত করা হয়। যাচাই-বাছাই শেষে আগামী ৮ জুলাই থেকে দ্বিতীয় ব্যাচের ক্লাস শুরু হবে। প্রশিক্ষণ কোর্সের মেয়াদ চার মাস। সরকারি ছুটির দিন বাদে প্রতিদিন ক্লাস নেওয়া হবে।

যোগাযোগ: প্রতি চার মাস পর পর নতুন ব্যাচ শুরু হয়। গাজীপুরে বিআরটিসি কেন্দ্রীয় প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট, তেজগাঁও ট্রেনিং ইনস্টিটিউট, গোপালগঞ্জ টুঙ্গিপাড়া ট্রেনিং ইনস্টিটিউট, মিরপুর প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, জোয়ারসাহারা প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং নরসিংদী, নারায়ণগঞ্জ, উথলী, কুমিল্লা, সোনাপুর, চট্টগ্রাম, সিলেট, দিনাজপুর, বগুড়া, পাবনা, ঝিনাইদহ, যশোর, খুলনা, বরিশাল প্রশিক্ষণ কেন্দ্র রেজিস্ট্রেশন করা যাবে।  আগ্রহীরা উল্লিখিত প্রশিক্ষণ কেন্দ্রগুলোতে যোগাযোগ রাখলে নতুন ব্যাচের প্রশিক্ষণ এবং বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন।

উপরে