বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৮ | ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

পূর্বধলায় শিক্ষকের বাসায় তালা ! ৫লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি

প্রকাশের সময়: ৬:৫৭ অপরাহ্ণ - শনিবার | জুন ৩০, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি
পূর্বধলা (নেত্রকোনা) সংবাদদাতা:  নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলা সদরের বালিকা বিদ্যালয়ের জ্যেষ্ঠ সহকারি শিক্ষক দয়াল চন্দ্র দে’র উপজেলা সদরের বাসায় এক দুবৃত্ত তালা ঝুলিয়ে পাঁচ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করার অভিযোগ পাওয়াগেছে।

খবর পেয়ে গত গত বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশ তালা খুলে দিলে পরে ওই দুবৃত্ত ও তার কতিপয় সঙ্গী পরদিন শুক্রবার গভীর রাতে ওই শিক্ষকের গ্রামের বাড়িতে গিয়ে পাঁচ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে ও তাকে প্রাণ নাশের হুমকী দিয়ে তাঁর লাইব্রেরীর দোকান ঘরের তালায় পায়খানা লাগিয়ে দেয়। এ ঘটনায় শিক্ষক দয়াল চন্দ্র দে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

পূর্বধলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের জ্যেষ্ঠ শিক্ষক ও আগিয়া ইউনিয়নের বুধি গ্রামের দয়াল চন্দ্র দে জানান, তিনি উপজেলা সদরের পরিমল কর্মকারের কাছ থেকে মঙ্গলবাড়িয়া এলাকায় ১৯৯৫ সালে দুই শতক জমি ক্রয় করে ওই জমিতে বাড়ি নির্মাণ করে বসবাস ও ভাড়া দিয়ে আসছেন। গত বৃহস্পতিবার ২৮ জুন বিকেলে ভাড়া দেওয়া বাসার ভারাটে চলে গেলে স্থানীয় পরিমল কর্মকারের ছেলে প্রসেনজিত কর্মকার ওই জমি ও বাসা তাদের দাবি করে তালা লাগিয়ে দেয়। পরে দয়াল চন্দ্র দে স্থানীয় বাসিন্দাদের পরামর্শে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ এসে তালা খুলে দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে গত শুক্রবার রাত ২টার দিকে প্রসেনজিতের নেতৃত্বে একদল দূর্বৃত্ত দয়াল চন্দ্র দে’র বুধি গ্রামের বাড়িতে গিয়ে পাঁচ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না দিলে প্রাণ নাশের হুমকি দেয় ও মঙ্গলবাড়িয়া বাজারে তার বইয়ের দোকান খুলতে নিষেধ করে আসে। আজ শনিবার সকালে দয়াল চন্দ্র দে দোকান খুলতে গিয়ে দেখেন তালায় মল লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে। দয়াল চন্দ্র দে বলেন, বর্তমানে তিনি চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। আজ দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নমিতা দে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ব্যাপারে পূর্বধলা থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) বিল¬াল উদ্দিন বলেন, তালা লাগানোর ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তালা খুলে দিয়েছে। দুষ্কৃতিকারীকে গ্রেফতারের চেষ্ঠা চলছে। চাঁদা দাবীর ব্যাপারেও লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপরে