বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৮ | ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

গাইবান্ধায় যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে হত্যা করলো পাষান্ড স্বামী

প্রকাশের সময়: ১০:২২ অপরাহ্ণ - শনিবার | জুন ৩০, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:

ফরহাদ আকন্দ, গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নে যৌতুকের জন্য স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন নির্যাতন করে হত্যার পর আছমা বেগম (২৬) নামে এক গৃহবধূর মুখে বিষ ঢেলে আত্মহত্যা বলে প্রচার চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আজ শনিবার (৩০ জুন) সকাল ৯টার দিকে গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে নেওয়া পর তার মৃত্যু হয়। গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের কাইয়ারহাট গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আছমা বেগম একই গ্রামের ময়েজ উদ্দিন ছেলে বাবলু মিয়ার স্ত্রী।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, আছমার সাথে প্রায় ১৪ বছর আগে ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া গ্রামের জয়নাল মিয়ার ছেলে বাবলু মিয়ার সাথে বিয়ে হয়।

আছমার মা নজিরন বেগম অভিযোগ করে বলেন, আমার মেয়ের সাথে জামাই বাবলু মিয়া, তার বাবা ময়েজ উদ্দিন, বড় ভাই জয়নাল মিয়া ও ছোট ভাই ফজলু মিয়া ও তার মা জাহেদা বেগম যৌতুকের জন্য প্রায়ই চাপ দিতো। মেয়ে জামায়ের মধ্যে পান থেকে চুন খোসলে আমার মেয়েকে তারা গালিগালাজ ও মারধর করতো।

এর জেরে শুক্রবার রাতে বাবলু মিয়া ও তার পরিবারের লোকজন আমার মেয়েকে বেধরক মারধর করে। এতে আমার মেয়ে অচেতন হলে তখন তারা আছমার মুখে বিষ ঢেলে আত্মহত্যার চেষ্টা বলে এলাকায় প্রচার করে। গুরুতর আহত অবস্থায় আছমাকে আজ সকালে গাইবান্ধা জেলা সদর হাসপাতালে নেওয়ার সময় আমাকে খবর দেওয়া হয়। পরে আমি হাসপাতালে গিয়ে শুনি আমার মেয়ের মৃত্যু হয়েছে।

গাইবান্ধা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খাঁন মো. শাহরিয়ার বলেন, আছমার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে গাইবান্ধা সদর থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে। এব্যাপরে ফুলছড়ি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

উপরে