রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

দেশে অনেক ভালো চলচ্চিত্র হয়,আমি সিনেমা দেখি : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশের সময়: ১০:১১ অপরাহ্ণ - রবিবার | জুলাই ৮, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকমডটবিডি:

দেশে ভালো চলচ্চিত্র নিমার্ণ হয় জানিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আমি দেখেছি দেশে অনেক ভালো চলচ্চিত্র হয়। সব সময় তো সিনেমা দেখার সুযোগ হয় না। যখন বিমানে করে যাই তখন অবশ্যই সিনেমা দেখি। এই একটাই সুযোগ। নিরিবিলি সুযোগ। তা ছাড়া তো সারা দিন ফাইল আর মিটিং নিয়েই ব্যস্ত।’

আজ রবিবার সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত জাতীয় চলচ্চিত্র প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা মহাকাশে বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করেছি। সুতরাং আমি আশা করি চলচ্চিত্র উন্নত হোক, গ্রাম পর্যায় পর্যন্ত পৌঁছে যাক।’

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘আমরা মহান মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ী জাতি। সেই বিজয়ী জাতি হিসেবে মাথা উঁচু করে চলতে চাই। আমরা আর কোনো ক্ষেত্রে পিছিয়ে থাকতে চাই না। কাজেই শিল্পের দিক থেকেও বিশেষ করে চলচ্চিত্র শিল্পের দিক থেকেও আমরা যেন বিশ্ব মানের চলচ্চিত্র তৈরি করে এগিয়ে যাই। তার জন্য যা করা দরকার আমি করে যাব। আমি জানি আমার বাবার হাতে তৈরি করা এই এফডিসি। তাই এই শিল্পের জন্য যা যা করা দরকার আমি আমার পক্ষ থেকে করে দেবো।’

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও আমাদের যে সংগ্রাম তা তুলে ধরে প্রয়োজন।’ এসময় তিনি চলচ্চিত্র শিল্পীদের কাছে যেতে পেরে আনন্দ প্রকাশ করেন। যারা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন এবং ভবিষ্যতে যারা পাবেন তাদের জন্য আন্তরিক অভিনন্দন জানান।

চলচ্চিত্রের গুরুত্ব সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘চলচ্চিত্রে অনেক কথা বলা যায়। সমাজ সংস্কারে ভূমিকা রাখা যায়। একটা সময় একটা কারণে এই চলচ্চিত্র দেখা বন্ধ করে দিয়েছিল। এখন কিন্তু আবার চলচ্চিত্রের জগতটা ফিরে আসছে। আমি আশা করি আমাদের চলচ্চিত্র আধুনিক হবে। চলচ্চিত্রের শিল্পীরা আরও আধুনিক হবেন। কারণ, বাংলাদেশ এখন ডিজিটাল।’

নারীর ক্ষমতায়নের বিষয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা বলেন, ‘আজকের পার্লামেন্টে একটি বিশেষ বিষয় নিয়ে কাজ হয়েছে। আমাদের জাতীয় সংসদে যে নারীদের জন্য সংরক্ষিত আসন রয়েছে তার সময়সীমা আরও ২৫ বছর বৃদ্ধি করা হয়েছে। এটা নারীর ক্ষমতায়নের জন্য অত্যন্ত জরুরি ছিল।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘স্বাধীনতার পর জাতির পিতা আমাদের জাতীয় সংসদে ১৫টি সংরক্ষিত আসন নির্দিষ্ট করে দিয়ে যান। কালের পরিক্রমায় এখন ৫০টি সংরক্ষিত আসন রয়েছে। আজ সপ্তদশ সংশোধনীর মাধ্যমে নারীদের জন্য ১০ বছর পর পর এর সময়সীমা বৃদ্ধি করতে হয়। তাই এবার আমি ২৫ বছর বৃদ্ধি করে দিয়েছি। ’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের মেয়েরা অনেক এগিয়ে গেছে। আমাদের তৃণমূল পর্যায় থেকেও নারীরা নির্বাচিত হবার একটা সুযোগ তৈরি দিয়েছিলাম। আজ এই সংশোধনীর জন্য সবাইকে ভোট দেওয়ার প্রয়োজন পড়ে। সে কারণে ভোট দিয়ে আসাতে আজকের অনুষ্ঠানে আসতে একটু দেরি হয়ে গেল।’

অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, তথ্য মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত স্থায়ী কমিটির সভাপতি রহমত উল্লাহসহ চলচ্চিত্র অঙ্গনের বিভিন্ন পর্যায়ের মানুষেরা উপস্থিত ছিলেন।

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

উপরে