রবিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৮ | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

মৌলভীবাজারের ৪ রাজাকারের ফাঁসির রায়ে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল

প্রকাশের সময়: ১০:১০ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার | জুলাই ১৭, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি:

এ.এস.কাঁকন, মৌলভীবাজার: একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার মো. আকমল আলী তালুকদারসহ চারজনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। মঙ্গলবার  ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এ রায় ঘোষণা ঘোষণা করেন। ট্রাইব্যুনালের অপর দুই সদস্য হলেন বিচারপতি আমির হোসেন ও বিচারপতি আবু আহমেদ জমাদার।
এ রায়ে দন্ডপ্রাপ্ত ৪ জনের মধ্যে সাবেক মাদ্রাসা শিক্ষক আকমল আলী তালুকদার ছাড়া বাকি আসামিরা পলাতক রয়েছে, এ রায়ের অন্য আসামিরা হলেন আব্দুর নুর তালুকদার ওরফে লাল মিয়া (৬২), আনিছ মিয়া (৭৬) ও আব্দুল মোছাব্বির।

এদিকে ৪ রাজাকারের ফাঁসির রায় হওয়ায় মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের একাংশ আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ করে।
রায় ঘোষনার পর মৌলভীবাজার চৌমুহনা চত্তর থেকে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রাসেল আহমদের নেতৃত্বে একটি আনন্দ মিছিল শহরে বের হয়। মিছিলটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে সেন্টাল রোডে এসে শেষে হয়। আনন্দ মিছিল শেষে মিষ্টি বিতরণ করেন ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ। ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রাসেল আহমদ বলেন মুক্তিযুদ্ধের সময় ,আকমল আলী তালুকদার, আব্দুন নূর তালুকদার ওরফে লাল মিয়া, আনিছ মিয়া ও আব্দুল মোছাব্বির এই চার জনের বিরুদ্ধে ৫৯জনকে হত্যা, ৬জনকে ধর্ষণ, ৮১টি বাড়িতে লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগে এই চারজনকে ফাঁসি প্রদান করেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল, আমরা এ রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করছি, অবিলম্বে যেনো এ রায় কার্যকর করা হয় এবং বাকী যে মামলাগুলো বিচারাধীন আছে সেগুলো যেনো অতিসত্ত¡র নিষ্পত্তি করা হয়।

সাবেক জেলা ছাত্রলীগের হাবিবুর রহমান রাজীব বলেন, এই রায়ের মধ্য দিয়ে মৌলভীবাজার জেলা কলংকমুক্ত হয়েছে ,অবিলম্বে মানবতাবিরোধী অপরাধী ৪ জনের ফাঁসি কার্যকর এবং অন্য মানবতাবিরোধী অপরাধীদের দ্রুত শাস্তির আওতায় আনার দাবী জানাচ্ছি। আনন্দ মিছিলে আরো উপস্থিত ছিলেন বিকাশ দাস, হাছিবুল ইসলাম নিলয়,আকাশ রায়,অনিক দে প্রমুখ।

একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার পাঁচগাঁঁওএ ৫৯ জনকে গণহত্যায় নিহতের পরিবার, এলাকাবাসী ও মুক্তিযোদ্ধাসহ সর্বস্তরের মানুষ দোষীদের ফাঁসি হওয়ায় খুশী হয়েছেন, আদালতের রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন এলাকাবাসী।

উপরে