শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৮ | ২রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

ফেনীতে এইচএসসি পরীক্ষায় ফল বিপর্যয় 

প্রকাশের সময়: ৯:৫০ অপরাহ্ণ - বৃহস্পতিবার | জুলাই ১৯, ২০১৮
কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি
শেখ আশিকুন্নবী সজীব, ফেনী প্রতিনিধি: এবছর সারা দেশে এইচএসসি পরীক্ষায় ফলাফলে পাশের হার ৬৬.৬৪% হলেও ফেনীতে পাশের হার ও জিপিএ-৫ প্রাপ্তির সংখ্যা কমেছে।  জেলার ৪০টি কলেজ থেকে এ বছর ১০ হাজার ৬২৭ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৫ হাজার ৪০২জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৯ জন। পাশের হার শতকরা ৫০.৮২%।
২০১৭ সালে জেলায় পাশের হার শতকরা ৪৪.৫০%। জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৮৬ জন। এর আগে ২০১৬ সালে পাশের হার ছিল ৬২.৫২% ও জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১৪০ জন। ২০১৭ সালের তুলনায় পাশের হার কিছুটা বাড়লেও এবছর জিপিএ-৫ কমেছে।
ফেনী গালর্স ক্যাডেট কলেজ বরাবরের মত এবারও ভাল ফলাফল করেছে। এ কলেজ থেকে ৫১ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সবাই জিপিএ-৫ পেয়ে পাশ করেছে।
ফেনী সরকারী কলেজ থেকে ১হাজার ৬০২ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে এক হাজার ১৩৭ জন, জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৪ জন এবং পাশের হার ৭১%। জয়নাল হাজারী কলেজ থেকে ৩৮১ জনের মধ্যে পাশ করেছে ৩৩৭ জন। পাশের হার ৮৮.৫৪%। সরকারী জিয়া মহিলা কলেজে ১ হাজার ১৭৩ জনের মধ্যে পাশ করেছে ৭৫১ জন,জিপিএ -৫ পেয়েছে ১ জন। পাশের হার ৬৪.০২%।
ফাজিলপুর সাউথ ইষ্ট কলেজে ১৮০ জনের মধ্যে পাশ করেছে ১৫৬ জন। পাশের হার ৮৬.৬৭%। ছাগলনাইয়ার মৌলভী সামছুল করিম কলেজ থেকে ৪৯৩ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৩১৭ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে দুইজন। পাশের হার ৬৪.৩০%। ছাগলনাইয়া সরকারী কলেজে এক হাজার ৫১ জনের মধ্যে পাশ করেছে ২০৫ জন। পাশের হার ১৯.৫০%।
জেলার ফেনী সদর উপজেলা থেকে ৫ হাজার ২২৭ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে তিন হাজার ২৭৪ জন , জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৬জন। পাশের হার ৬২.৬৪%।
সোনাগাজী উপজেলা থেকে ৯২১ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ২৭৮ জন, জিপিএ-৫ পেয়েছে একজন। পাশের হার ৩০.২০%।
ছাগলনাইয়া উপজেলা থেকে এক হাজার ৮২৯ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ৬৬০ জন , জিপিএ-৫ পেয়েছে দুইজন। পাশের হার ৩৬.১৯%।
দাগনভূঁঞা উপজেলা থেকে এক হাজার ৩০৯ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ৬৪১ জন। পাশের হার ৪৮.৯৭।
ফুলগাজী উপজেলা থেকে ৮৬৩ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ৩৩৩ জন। পাশের হার ৩৫% ও পরশুরাম উপজেলা থেকে ৪৭৮ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ২৪৫ জন। পাশের হার ৩১.২৬%।
ফেনী গালর্স ক্যাডেট কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ লোকমান হাকিম জানান, কলেজের ভাল ফলাফলে শিক্ষক শিক্ষার্থী সবাই খুশী হয়েছে। তবে ভাল ফলাফলের জন্য শিক্ষকরা শ্রেণি কক্ষে পাঠদানসহ বিভিন্ন ভাবে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় উদ্বুদ্ধ করেছে।
ফেনী সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ বলেন, এ বছর কলেজের ফলাফল সন্তোষজনক না হলেও মোটামুটি ভাল। এ জন্য শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি অভিভাবকদের ভূমিকাও ছিল।

উপরে