বুধবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৮ | ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

ঈদগাঁওয়ে বনবিভাগের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও পাহাড় কেটে বালু উত্তোলন

প্রকাশের সময়: ১০:০৭ অপরাহ্ণ - সোমবার | জুলাই ৩০, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

ঈদগাঁও (কক্সবাজার) প্রতিনিধি: কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের ঈদগাঁও মেহেরঘোনা রেঞ্জ অফিসের কালিরছড়া বিটের আওতাধীন পাহাড় কেটে ড্রেজিং মেশিন দ্ধারা বালু উত্তোলন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। খালের লীজ নেয়া হলেও প্রকৃতপক্ষে বনবিভাগের পাহাড় কেটে বালু উত্তোলন ও বিক্রয় করা হচ্ছে।

প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, ইউনিয়নের কালির ছড়া বিট অফিসের অধীন ২০১০/২০১১ সালের আগর প্লট ও এজাহার মিয়া ঘোনার মাঝে দীর্ঘদিন যাবত ড্রেজিং মেশিন দ্ধারা বালু উত্তোলন অব্যাহত রয়েছে। গত ১০ দিন পুর্বে বনবিভাগের নিয়মিত টহলের সময় মেহেরঘোনা রেঞ্জ কর্মকর্তা বিষয়টি দেখতে পেলে মেশিনের যন্ত্রাংস জদ্ধ করে।

জানা গেছে, কালির ছড়া খালের সরকারীভাবে লীজ নেয়া হলেও বিগত ২০/৩০ বছর যাবত বালি উত্তোলনের ফলে নদীর কোথাও বালু নাই। তাই বাধ্য হয়ে বনবিভাগের পাহাড় ড্রেজিং মেশিন দ্ধারা কাটা ছাড়া আর কোন পথ নাই। এতে বনবিভাগের কিছু কর্মচারীর প্রত্যক্ষ সহযোগীতা রয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

এ ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে কালির ছড়া বনবিট কর্মকর্তা জানান, গত ১৫/২০ বছর যাবত বনবিভাগের পাহাড় কেটে বালি উত্তোলন করা হচ্ছে। তিনি যোগদান করার পর কয়েকবার মেশিন জব্দ করেছে মামলা করেছেন। অনেক সময় ভারী মেশিন আনা সম্ভব হয়না তাই বাধ্য হয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি বা হেডম্যানকে জিম্মায় রাখ হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় কাহাতীয়াপাড়ার একজন শিক্ষক জানান, বন বিভাগ কতৃক ক্ষতিগ্রস্থ পাহাড় সমুহ লাল পতাকা দ্ধারা চিহ্নিত করে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হলেও বালু উত্তোলন অব্যাহত রয়েছে।

উপরে