বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

খুলনা-৪ আসনের উপনির্বাচনেপ্রার্থী হচ্ছেন সালাম মুর্শেদী

প্রকাশের সময়: ৯:৩৬ অপরাহ্ণ - শুক্রবার | আগস্ট ৩, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

জাতীয় সংসদের সাবেক হুইপ ও সংসদ সদস্য মোস্তফা রশিদী সুজার মৃত্যুতে শূন্য হওয়া খুলনা-৪ আসনের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে পারেন বিজিএমইএ’র সাবেক সভাপতি ও ফুটবলার আব্দুস সালাম মুর্শেদী। এ আসনের উপ-নির্বাচনে অনেকেই আগ্রহী হলেও শেষ পর্যন্ত তাকেই দলীয় মনোনয়ন দেয়া হতে পারে।

গত ২৭ জুলাই সিঙ্গাপুরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সংসদ সদস্য এস এম মোস্তফা রশিদী সুজার মৃত্যু হয়। সংবিধানের ৬৭ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী কোনো আসন শূন্য হলে তা পূরণের জন্য ৯০ দিনের মধ্যে উপ-নির্বাচনের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। সে ক্ষেত্রে আগামী ২৭ অক্টোবরের মধ্যে এ আসনের উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আসন্ন হওয়ায় এ আসনের উপ-নির্বাচন নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছিল। সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতায় এ আসনে উপ-নির্বাচনের বিকল্প নেই। চলতি দশম সংসদের মেয়াদ ২০১৯ সালে ১৯ জানুয়ারি পর্যন্ত রয়েছে।

এদিকে শূন্য হওয়া খুলনা-৪ (রূপসা-তেরখাদা-দিঘলিয়া) আসনের উপ-নির্বাচনে প্রার্থী হতে অনেকেই তৎপর হয়ে উঠেছেন। প্রয়াত সুজার একমাত্র ছেলে জেলা পরিষদ সদস্য খালেদীন রশিদী সুকর্ণকে সংসদ সদস্য হিসেবে চাইছেন দলের একটি অংশ। অপরদিকে প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান খুলনা-৬ ছেড়ে এই এলাকাতেই যোগাযোগ বাড়িয়েছেন। দীর্ঘদিন থেকেই সাংগঠনিকভাবে তৎপর জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামরুজ্জামান জামালও প্রার্থী হতে চাইছেন। সবাইকে চমকে দিয়ে এ আসনে প্রার্থী হতে পারেন আব্দুস সালাম মুর্শেদী।

দলীয় সূত্রমতে, আব্দুস সালাম মুর্শেদী খুলনা-৪ আসনের অধিবাসী হলেও মোস্তফা রশিদী সুজার কারনে তিনি এখানে প্রার্থী হতে আগ্রহ দেখাননি। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তাকে খুলনা-২ আসন থেকে প্রার্থী করা হচ্ছে এমনই গুঞ্জন ছিল। সে অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার খুলনায় সর্বশেষ জনসভায় তাকে বক্তৃতা করার সুযোগ দেয়া হয়। ওই আসনের সংসদ সদস্য ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজানের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ থাকায় দলীয়ভাবে সালাম মুর্শেদীকেই প্রার্থী করার বিষয়টি চূড়ান্ত ছিল।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা রশিদী সুজার আকস্মিক মৃত্যুতে পুরো পরিস্থিতি পাল্টে গেছে। এছাড়া সর্বশেষ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মিজানুর রহমান মিজানের ভুমিকায় বিষয়টি পূনর্বিবেচনার সুযোগ করে দিয়েছে। মোস্তফা রশিদী সুজার মৃত্যু পরবর্তী সকল আনুষ্ঠানিকতায় আব্দুস সালাম মুর্শেদীকে সামনে নিয়ে আসা হয়েছে। জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় জানাযা শেষে মরদেহ খুলনায় নিয়ে যাওয়ার হেলিকপ্টারেও সালাম মুর্শেদী ছিলেন।

উপ-নির্বাচনে প্রার্থীতার বিষয়ে মুখ খুলছেন না আব্দুস সালাম মুর্শেদী।  তিনি বলেছেন, দলীয়নেত্রী যেভাবে নির্দেশনা দেবেন সেভাবেই কাজ করবো। আমি মানুষের কল্যাণে কাজ করতে চাই। তিনি যেখানে সুযোগ দেবেন, সেখানেই কাজ করতে প্রস্তুত।

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

উপরে