মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর, ২০১৮ | ২৯শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

বিশ্বনাথে শখের বসে বাড়ির ছাদে কলেজছাত্রের ফলের বাগান

প্রকাশের সময়: ৬:৩৩ অপরাহ্ণ - রবিবার | আগস্ট ৫, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

সিলেটের বিশ্বনাথে শখের বসে নিজ বাড়ির ছাদের ওপর ফলের বাগান করে সফলতা লাভ করেছেন মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম (১৭) নামের এক কলেজছাত্র। নুরুল ইসলামের গড়ে তোলা বাগানটি দেখলে মন জুড়িয়ে যায়। কিছু ফলগাছ আছে যেগুলো সারাবছর ফল ধরে। ছাদের বাগানে চাষ করা বিষমুক্ত ফল পরিবারের নিজেরা খাচ্ছেন এবং আত্মীয়স্বজন ও প্রতিবেশীদের বাড়িতেও পাঠাচ্ছেন।

জানা যায়, উপজেলার দেওকলস ইউনিয়নের আলাপুর গ্রামের ইছন আলীর পুত্র ও সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার দ্বাদশ শ্রেণির ২য় বর্ষের ছাত্র মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম। কৃষিবিদ শাইখ সিরাজের বিভিন্ন প্রোগ্রামের ভিডিও তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে ইউটিউবে দেখে নুরুল ইসলামের মনে আগ্রহ জাগে একটি ফলের বাগান করার। একপর্যায়ে ২০১৭ সালের শেষের দিকে বিশ্বনাথ বাজারে ভ্রাম্যমাণ নার্সারি থেকে বরই, কমলা ও মালটা ফলের ৩টি গাছ ক্রয় করে নিজ বাড়ির ছাদের ওপর টবে লাগান নুরুল।

নিজের লাগানো গাছগুলোতে ফল আসতে শুরু করলে উৎসাহ বেড়ে যায় তার। এরপর নুরুল ইসলাম চলতি বছরের শুরুতে দেশি কমলা, চাইনিজ কমলা, বারমাসী কমলা, ভারি মাল্টা, চাইনিজ মাল্টা, চাইনিজ পেয়ারা, সাতকরা, লেবু, আদালেবু, বরই, আম, সফেদা, বাউকুল, আপেল কুল, নাগা মরিচ, চাল কুমড়া, করমচাসহ আরো বিভিন্ন প্রজাতির ফলের গাছ টব ও ড্রামের মধ্যে লাগিয়ে বাড়ির ছাদের ওপর গড়ে তোলেন ফলের বাগান। তার লাগানো এসব গাছের মধ্যে এখন ঝুলছে দেশি কমলা, চাইনিজ কমলা, ভারি মাল্টা, চাইনিজ মাল্টা ও আদালেবু এবং আমের গাছে এসেছে মুকুল।

নুরুল ইসলাম জানান, তিনি পড়ালেখার পাশাপাশি প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে ও বিকেলে কলেজ থেকে ফিরে লাগানো গাছগুলোর পরিচর্যা করেন। নিজের হাতে লাগানো গাছের ফলগুলো দেখে তার মন জুড়িয়ে যায়। তিনি বলেন, ‘গাছ থেকে নিজ হাতে ফল পেড়ে খাওয়ার মজাই আলাদা, আর নিশ্চিত মনে বিষমুক্ত ফলও খেতে পারছি।’

উপরে