শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

সংসদীয় কমিটিতে বিদায়ের সুর

প্রকাশের সময়: ১২:৪৪ অপরাহ্ণ - সোমবার | আগস্ট ১৩, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

চলমান দশম জাতীয় সংসদের মেয়াদ শেষ হয়ে আসছে। সামনে নতুন নির্বাচন ও নতুন সরকার গঠনের প্রক্রিয়াকে সামনে রেখে সংসদীয় কমিটির বৈঠকেও চলছে বিদায়ের পালা।

৫ বছর কমিটির সদস্য থাকার পর এখন একে অপরের কাছ থেকে বিদায় নিচ্ছেন। আবার যেন তারা নির্বাচিত হয়ে সংসদে আসতে পারেন সেজন্য একে অপরের দোয়াও চাচ্ছেন। কোলাকুলি করছেন।

জাতীয় সংসদ ভবনে রোববার অনুষ্ঠিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ১৮তম বৈঠকে এ বিদায়ের সুর বেজে ওঠে।

কমিটির সভাপতি ডা. আ ফ ম রুহুল হকের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য মোহাম্মদ আমান উল্লাহ, আয়েন উদ্দীন এবং নূরুল ইসলাম মিলন অংশ নেন করেন। বিশেষ আমন্ত্রণে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী স্থাপতি ইয়াফেস ওসমান বৈঠকে যোগ দেন।

এই কমিটির সভাপতি সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. আ ফ ম রুহুল হক হলেও নিয়ম মেনে বৈঠক করেননি তিনি। এই কয় বছরে কমপক্ষে ৬০টি বৈঠক হওয়ার কথা থাকলেও হয়েছে মাত্র ১৮টি। এর আগের বৈঠক হয় ফেব্রুয়ারি মাসে। আবার  প্রায় ৬ মাস পর কমিটি বৈঠক করল। তাই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে আর কোনো বৈঠক হবে না। এজন্য কমিটির সভাপতি সবার কাছে দোয়া চান।

তিনি জানিয়ে দেন, হয়তো নির্বাচনের আগে এটিই শেষ বৈঠক। এজন্য তিনি সবার কাছে দোয়া চান যেন আবার তিনি এমপি হয়ে সংসদে যেতে পারেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কমিটির সদস্য নূরুল ইসলাম মিলন গণমাধ্যমকে বলেন, অনেক দিন একসঙ্গে থেকে মিটিং করেছি। এ জন্য সবাই কোলাকুলি করে বিদায় নিলাম। আশা করি সবার সঙ্গে আবার দেখা হবে।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ২৮ জানুয়ারি বর্তমান সংসদের মেয়াদ শেষ হবে। সংবিধান অনুযায়ী মেয়াদ শেষের পূর্ববর্তী ৯০ দিনের মধ্যে সংসদ নির্বাচনের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। সেই হিসেবে ৩০ অক্টোবর থেকে নির্বাচনের ক্ষণগণনা শুরু হবে।

এদিকে সংসদ থেকে পাঠানো এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বৈঠকে কমিটিকে জানানো হয় যে, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রসহ অন্যান্য পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন ও পরিচালনার জন্য Nuclear Power Plant Company Bangladesh Limited (NPCBL) গঠন করা হয়েছে। ইতোমধ্যে এনপিসিবিএলের জন্য স্বতন্ত্র বেতন কাঠামো গঠন করা হয়েছে। ইতোমধ্যে ৮৩ জন প্রকৌশলী/বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা সমমানের কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়েছে এবং ২০১৯ সালে প্রশিক্ষনের জন্য ৩৮২জন কর্মকর্তা নিয়োগের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।

শরীরের জন্য ক্ষতিকর নয় এরূপ বিভিন্ন খাদ্য সংযোজন দ্রব্য প্রিজারভেটিভ এর মাত্রা নিরুপণের জন্য এর সাথে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলো বসে প্রিজারভেটিভের মাত্রা সুপারিশ করে কমিটি।

সাধারণ জনগণ এবং ডাক্তারদের মাঝে নিউক্লিয়ার মেডিসিনের চিকিৎসা সেবা প্রদান সম্পর্কে সম্যক ধারণা প্রচার-প্রচারণা বাড়ানোর জন্য মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করা হয়।

উন্নত সমৃদ্ধ বিজ্ঞা মনস্ক জাতি গঠন, বিজ্ঞান গবেষণা উন্নয়নে বঙ্গবন্ধু বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তি ফেলোশিপ ট্রাস্টে ফেলোশিপ প্রদানের সংখ্যা আরও বৃদ্ধি করার জন্য মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করা হয়।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়ের সচিব, বিসিএসআইআরের চেয়ারম্যান, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

উপরে