বুধবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৮ | ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

‘সোশ্যাল মিডিয়ার আপত্তিকর কন্টেন্ট বিশ্লেষণে ইউনিট করা হবে’ – তারানা হালিম

প্রকাশের সময়: ৫:৫৬ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার | আগস্ট ১৪, ২০১৮
কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি
তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত বিষয়বস্তু কন্টেন্ট বিশ্লেষণ করে আপত্তিকর কন্টেন্টের বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বিটিআরসিকে জানাতে তথ্য মন্ত্রণালয়ে একটি পৃথক ইউনিট করা হবে।
আজ মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা জানান।
তারানা হালিম বলেন, তথ্য মন্ত্রণালয়ে আমরা ছোট একটি ইউনিট করতে চাইছি। সেখানে সোশ্যাল মিডিয়ার কন্টেন্ট বিশ্লেষণ করবো যেন কোনোরকম গুজব, নেতিবাচক প্রচারণা, নারীদের বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক বক্তব্য, নারীর সম্মানহানীকর বক্তব্য যাচাই করে বিটিআরসিকে জানিয়ে দিতে পারি যে, এই কন্টেন্টগুলো সত্য নয়, ভিত্তিহীন কিংবা মানহানিকর, এটা নারীর জন্য অবমাননাকর।
সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম প্রচারের জন্য উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, প্রান্তিক পর্যায়ের মানুষকে জানানো যে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হচ্ছে, এর গর্বিত অংশীদার তারা। এই আইডিয়াটিকে সামনে রেখে তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে কার্যক্রম গ্রহণ করেছি।
তথ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, গণযোগাযোগ অধিদফতর থেকে গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে প্রচার কার্যক্রম শক্তিশালীকরণ প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এর মাধ্যমে শুধু জেলাতেই নয়, দেশের চার হাজার ৫৫৪টি ইউনিয়নে উন্নয়ন বার্তা জনগণের সামনে পৌঁছে দেওয়া।
দ্বিতীয় পরিকল্পনা নিয়ে তারানা হালিম বলেন, শান্তিচুক্তির পর পার্বত্য এলাকায় যে উন্নয়ন হয়েছে সেই বিষয়টি গণযোগাযোগ অধিদফতরের একটি সেলের মাধ্যমে টেলিটকের সঙ্গে চুক্তির করে ২০টিরও বেশি ক্ষুদ্র নৃ-গাষ্ঠীর কাছে মেসেজের মাধ্যমে পৌঁছে দেওয়া হবে।
তিনি বলেন, মাদকবিরোধী অভিযানে কয়েদিদের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করতে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কারাগারে টিভিসি ও মাদক গ্রহণের কুফল দেখানো হবে। এর অংশ হিসেবে আগামী ১২ সেপ্টেম্বর কাশিমপুর কারাগারে নারী কয়েদিদের কাছে মাদকের কুফল সম্পর্কে প্রচারণা চালানো হবে বলেও জানান তারানা হালিম।

উপরে