রবিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৮ | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

দিনাজপুরে নকল পণ্যে তৈরীর কারখানা আবিস্কার!

প্রকাশের সময়: ৬:১৯ অপরাহ্ণ - শুক্রবার | আগস্ট ১৭, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

শাহ্ আলম শাহী, দিনাজপুর থেকে: দিনাজপুরের বিরলে নকলপণ্য তৈরী ও বাজার জাত করার অপরাধে এক যুবকবে ছয় মাসের কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। ওই যুব উপজেলার শহরগ্রাম ইউপি’র নোনাগ্রামের আব্দুস সামাদের পুত্র মঞ্জুরুল ইসলাম বাবু (৩০) কে শুক্রবার দুপুর ১২ টায় ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও বিরল উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম রওশন কবীর এ সাজা প্রদান করেন। সেই সাথে বাবুর বাড়ীতে নকল ভোগ্যপন্য ও লেবেল উদ্ধার করে উপস্থিত এলাকাবাসীর সামনে তা ধ্বংস করা হয়।

এলাকাবাসী জানান, মঞ্জুরুল ইসলাম বাবু দীর্ঘ দিন বিভিন্ন ভোগ্যপনের বিপণনের চাকুরি করেছে। সে সুবাদে সে বিভিন্ন পন্য তৈরীর কিছু নিয়ম কানুন রপ্ত করে। এরপর নিজ বাড়িতে ফিরে শুরু করে বাজারে প্রচলিত পন্যের নকল পন্য তৈরী ও বাজার জাত। শহর থেকে দুরে নিভৃত পল্লীর নিজের এই বাড়িতে বসেই সে দীর্ঘদিন ধরে এব্যবসা চালিয়ে আসছে। অবশেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে ধরা পড়ে মঞ্জুরুলের সেই ব্যবসা।

ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও নির্বাহী অফিসার এবিএম রওশন কবীর জানান, মঞ্জুরুলের বাড়িতে বিভিন্ন ধরনের নকল ও ভেজাল পণ্য তৈরীর খবর পান তিনি। খবর পেয়ে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ভেজাল পন্য তৈরী করার সময় মঞ্জুরুলকে আটক করেন। মঞ্জুরুল ইসলাম বাবু তার বাড়ীতে কারখানা করে বিভিন্ন কোম্পানীর আটা, সরিষার তেল, চাল, চিনি, নিষিদ্ধ এন্যার্জি ড্রিংক্সসহ ১৬ ধরনের নকল ও ভেজাল পন্য তৈরী করতো। সেখান থেকে এসব পন্য তৈরীর উপকরণ ও বিএসটিআই এর বিভিন্ন ধরনের জাল কাগজ জব্দ করেন ভ্রাম্যমান আদালত। পরে বিচারক সকলের উপস্থিতিতে এসব পণ্য ধ্বংস করেন এবং মঞ্জুরুলকে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

বিরল থানায় আটক মঞ্জুরুল ইসলাম বাবু প্রথম জানান, প্রায় একবছর থেকে সে এসব পন্য তৈরী করে বাজারজাত করতো। তবে এলাকাবাসী জানিয়েছেন মঞ্জুরুল দীর্ঘ দিন থেকে এসব নকল ও ভেজাল পন্য তৈরী কওে বাজার জাত করে আসছিল।

উপরে