রবিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৮ | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

শিবপুরে ছুরিকাঘাতে যুবক নিহতের জেরে ভাংচুর অগ্নিসংযোগ

প্রকাশের সময়: ৭:৩৪ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার | আগস্ট ২৮, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি
ইলিয়াছ হায়দার, শিবপুর (নরসিংদী) সংবাদদাতা: নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার আইয়ুবপুর ইউনিয়নের শানখোলা গ্রামে ২৭ আগষ্ট সোমবার বিকাল ৫ টায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ছুরিকাঘাতে নজরুল নামে এক যুবক নিহত হয়। সে আদুরী মিলে কর্মচারী ও আলিয়াবাদ গ্রামের মজিবুর রহমানের ছেলে।

জানা যায় গত ১৫ দিন পূর্বে মাছ ধরাকে কেন্দ্র্র করে নজরুল ইসলামের ভাই ও শানখোলা গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা বাছেদ মাস্টারের ছেলে মুরাদ এর মধ্যে মারামারি হয়। ফলে বিষয়টি নজরুলের অভিভাবক মুরাদের অভিভাবককে জানায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মুরাদ সোমবার নজরুল ইসলাম কে ছুরিকাঘাত করে। এসময় নজরুল ইসলামের ডাক চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে মুরাদ পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন নজরুল ইসলামকে উদ্ধার করে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

নজরুল ইসলামের মৃত্যুর খবর এলাকায় দ্রুত ছড়িয়ে পরলে বিক্ষুব্ধ জনতা মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বাছেদ মাস্টারের একটি দোকান, বাড়িঘর ভাংচুর, লুটপাট এবং অগ্নিসংযোগ করে পুড়িয়ে দেয়। তাছাড়া একটি কলের লাঙ্গল, ২টি খড়ের পাড়া, ৩টি পিকআপ ভ্যানে অগ্নি সংযোগ করে বিক্ষুব্ধ জনতা। এসময় হামলায় বাছেদ মাস্টার ও তার পরিবারের ৪ জন সদস্য আহত হয়। খবর পেয়ে স্থানীয় শিবপুর মডেল থানার পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। পরে শিবপুর উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শীলু রায়, সহকারী কমিশনার (ভূমি), এএসপি সার্কেল (শিবপুর) থানার খায়রুল হাসান, শিবপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এব্যাপারে এএসপি সার্কেল (শিবপুর) থানার খায়রুল হাসান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান পরিস্থিতি এখন পুলিশের নিয়ন্ত্রণে আছে। শিবপুর মডেল থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, নিহত নজরুলের মা সামসুন্নাহার বাদী হয়ে ২৮ আগস্ট ২ টায় মামলা দায়ের করেন ৯ জনকে আসামী করে। মামলা নং-৩১।

উপরে