শনিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৮ | ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

মোরেলগঞ্জে শিক্ষক কর্তৃক ছাত্রীকে যৌন হয়রানী

প্রকাশের সময়: ৮:০২ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার | আগস্ট ২৮, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

মো: শামীম আহসান মল্লিক, মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট) প্রতিনিধি: বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে শিক্ষক কর্তৃক ছাত্রীকে যৌন নিপিড়নের ঘটনায় বিক্ষুব্দ এলাকাবাসীর মাঝে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। ঘটনায় জড়িত লম্পট শিক্ষক দেবব্রত সমাদ্দার এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থাসহ তাকে বহিস্কারের দাবীতে গোটা এলাকাবাসী কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছেন।

অভিযোগে বলা হয়, উপজেলার শৈলখালী গ্রামের বাসিন্দা ও শৈলখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী (১২) প্রতিদিনের মত সোমবার বিকেলে বিদ্যালয় শ্রেণীকক্ষে প্রাইভেট পড়তে আসে। এ সময় লম্পট শিক্ষক সুযোগ বুঝে একটি নির্জন কক্ষে নিয়ে ওই কিশোরীকে ধর্ষনের চেষ্টা চালায়। ধ্বস্থাধস্থি আর কিশোরীর আর্তচিৎকারে পড়তে আসা অন্যান্য শিক্ষার্থীরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে শিক্ষক দেবব্রত দৌড়ে পালিয়ে যান। ইতি পূর্বেও তার বিরুদ্ধে একাধীক ঘটনা ঘটালেও লজ্জায় কেউ মুখ খোলেনি। এ সময় সহপার্টিদের কাছে ঘটনার বর্ননা দেয় যৌন হয়রানীর শিকার কিশোরী।

বিষয়টি পরবর্তীতে অভিভাবকসহ এলাকায় জানাজানির পর জনসাধারনের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভ দানা বেঁধে উঠেছে। অন্যদিকে বিক্ষুব্দ জনতার রোসানল থেকে বাঁচতে লম্পট দেবব্রত এখনো পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। পুলিশ তাকে আটকের ব্যাপারে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে। যৌন নিপিড়নের শিকার ওই কিশোরীকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে।

এদিকে সহপার্টিকে নির্যাতনের ঘটনায় জড়িত লম্পট শিক্ষকের বিচার দাবীতে সোচ্চার সকল শিক্ষার্থী দেবব্রত কে খুঁজে বের করে দ্রুত আইনের হাতে সোপর্দ করতে পুলিশ প্রশাসনের ওপর দাবী জানিয়েছে। ন্যাক্কারজনক এ ঘটনায় সকল শিক্ষার্থীর লম্পটের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবী করে বলেন, দেবব্রত সমদ্দারকে বহিস্কার না করা হলো এলাকাবাসীকে সাথে নিয়ে তীব্র আন্দোলন সহ প্রয়োজনে ক্লাশ বর্জন করা হবে।

বিষয়টি ক্ষমার অযোগ্য মন্তব্য করে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আশিষ কুমার বলেন, তদন্তে সত্যতা পাওয়া গেলে দায়ী শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি অনুজ হালদার বলেন, ঘটনার সত্যতা খুঁজে বের করে দোষী ব্যক্তি যতই প্রভাবশালী হোক তাকে ছাড় দেয়া হবেনা।

এলাকার জনপ্রতিনিধি দিপক মাঝি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, লম্পট দেবব্রতকে উপযুক্ত শিক্ষা দেয়া উচিত। ইতিপূর্বে তার বিরুদ্ধে একই ঘটনার অভিযোগ রয়েছে। কোন প্রভাবশালীর ছত্র ছায়ায় থেকেও সে রেহাই পাবেনা।

জানতে চাইলে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে মোড়েলগঞ্জ থানার ওসি কে. এম আজিজুল বলেন খবর পেয়ে আমি নিজেই সরেজমিন পরিদর্শনকালে ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছি। তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে। তাকে গ্রেফতারে পুলিশি তৎপরতা অব্যহত রয়েছে।

উপরে