বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৮ | ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

মেথির তেলের জাদু!

প্রকাশের সময়: ৩:০১ পূর্বাহ্ণ - শনিবার | সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

রান্নার অনুষঙ্গ হিসেবে মেথির সাথে কম বেশি সবাই পরিচিত। কিন্তু এর গুণাগুণ অনেকেরই অজানা।মেথির মতই, মেথির তেল ও অনেক উপকারী। আজ আমরা মেথির তেলের উপকারিতা সম্পর্কে জানবো।

আমাদের চুলের বহু সমস্যায় মেথির তেলের রয়েছে বিবিধ ব্যবহার। যেমন- কম বয়সে চুল পেকে যাওয়া থেকে রক্ষা পেতে, চুলের বৃদ্ধিতে, খুশকি দূরীকরণসহ আরো অনেক ক্ষেত্রে মেথির তেলের ব্যবহার হয়ে থাকে।তাই সুন্দর চুল পেতে ঝটপট এর ব্যবহার শুরু করে দিন।

পদ্ধতি-১
মেথির তেল ১ টেবিল চামচ, নারিকেল তেল/ আমন্ড অয়েল/ অলিভ অয়েল সব এক সাথে পরিমাণ মত।

সব তেল এক সাথে মিক্সড করে ম্যাসাজ করুন। চুলে তেল দেয়ার আগে, তেলটা সামান্য গরম করে নিতে পারেন।এভাবে ৪০/৪৫ মিনিট রেখে শ্যাম্পু করে নিন। তারপর কন্ডিশনার লাগান। এভাবে মিশ্রণটি সপ্তাহে এক দিন অথবা মাসে দুইবার লাগাতে পারেন।

ফলাফলঃ চুল পড়া বন্ধচুলের-যত্নে-মেথির-উপকারিতা।আগা ফাটা সমস্যা দূর করে।চুলের ঘনত্ব বৃদ্ধি ও চুল স্বাস্থ্যোজ্জ্বল হবে।

সতর্কতাঃ মিশ্রণটি পরিষ্কার চুলে লাগান।মেথিতে আপনার এালার্জি থাকলে মিশ্রণটি ব্যবহার না করাই ভাল।

পদ্ধতি-২
মেথির তেল, নারিকেল তেল।

১ টেবিল চামচ নারিকেল তেল নিন। এতে ১ টেবিল চামচ মেথির তেল নিন। ভালো করে মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি গরম করে নিন। হালকা ঠাণ্ডা হলে ভালো ভাবে চুলে ম্যাসাজ করে নিন।

সারা রাত রেখে পরেরদিন শ্যাম্পু করে, চুলে কন্ডিশনার দিন। এভাবে সপ্তাহে দুই বার এই তেলটি ব্যবহার করুন।

ফলাফলঃ চুল পড়া বন্ধ হয়। চুলের গোড়া মজবুত হয়।অকালে চুল পাকা থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।আগের তুলনায় চুলের রুক্ষতা কমে, তাতে কোমলতা ফিরে আসে ও স্ক্যাল্পের চুলকানি কমে ও খুশকি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

মেথি ঔষধী গুণে সমৃদ্ধ। এতে রয়েছে প্রোটিন, ভিটামিন-সি, আয়রণ, পটাসিয়াম, নিকোটিনিক এসিড, লেসিথিন।

নিয়মিত এই পদ্ধতি দুই টির যে কোন একটি নিয়মিত ব্যাবহার করবেন তাহলে ভালো ফলাফল পাবেন।

বেশি করে পানি পান করুন এবং প্রচুর পরিমানে শাক সবজি খান।

 

উপরে