মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর, ২০১৮ | ২৯শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

কেনাকাটায় খরচ কমানোর মনস্তাত্ত্বিক কৌশল

প্রকাশের সময়: ৯:০১ পূর্বাহ্ণ - রবিবার | সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

আপনার টাকা আপনি কেন ও কিভাবে খরচ করবেন এবং কিভাবে আপনি একজন দক্ষ ক্রেতায় পরিণত হতে পারবেন, এগুলোর পেছনে বেশ কিছু বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা রয়েছে। আজকের প্রতিবেদন এরকম বিজ্ঞানসম্মত ১০টি কৌশল নিয়ে, যা আপনার বাজে খরচের পরিমাণ কমিয়ে আনতে সহায়তা করবে।

* উৎসবের জাঁকজমকতা থেকে সাবধান থাকুন 
সানফ্রান্সিসকোর গোল্ডেন গেট বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞানের অধ্যাপক ড. কিট ইয়ারোর মতে, ছুটির দিন বা কোনো উৎসবমুখর পরিবেশে লাল এবং সবুজ রঙে সাজানো দোকানগুলো আপনাকে কেনাকাটায় উৎসাহিত করতে পারে এবং এর ফলে আপনার কেনাকাটার খরচ বেড়ে যায়। তিনি আরো বলেন, লাল রঙ আপনার অভ্যন্তরীণ সত্ত্বাকে জাগ্রত করে। উদাহারণস্বরূপ বলা যায়, যেসব দোকান বা রেস্টুরেন্টের কর্মীরা লাল রঙের ইউনিফর্ম পরে তারা অন্যান্য রঙের ইউনিফর্ম পরিহিতদের তুলনায় ১৪-২৬ শতাংশ বেশি বকশিস গ্রাহকের কাছ থেকে পেয়ে থাকে। অন্যদিকে সবুজ রঙটি আকাঙ্ক্ষা, ধনসম্পদ এবং ভাগ্যের সঙ্গে সম্পর্কিত। এজন্য বড় দোকানগুলো কোনো উৎসবের সময় সবুজ রঙে দোকান সাজিয়ে থাকে।

তাছাড়া দোকানিরা দামি ও আকর্ষণীয় পণ্যগুলো সামনের দিকে রাখে এবং আপনি তাতে আকৃষ্ট হন। গবেষণায় দেখা গেছে, এরকম পরিস্থিতিতে আপনি সামনে যেটা পান সেটাই আপনার কিনতে ইচ্ছা করে। এছাড়াও বিভিন্ন দোকান মৌসুম অনুযায়ী নানান সুগন্ধীর বন্দোবস্ত করে থাকে। এভাবে তারা আপনাকে বেশিক্ষণ ধরে শপিংয়ে উৎসাহিত করে এবং আপনার খরচ বেড়ে যায়।

* উঁচু হিলের জুতা পরে শপিংয়ে যান
এক গবেষণায় দেখা গেছে, কেনাকাটার সময় ক্রেতাদের নিজের শারীরিক ভারসাম্যের প্রতি মনোযোগ থাকলে তারা দামী বা কম গুণগত মানের পণ্যের তুলনায় মাঝামাঝি দামের কোনো পণ্যের প্রতি বেশি আগ্রহী হন। ব্রিঘাম ইয়ং বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় দেখা গেছে, উঁচু হিলের জুতা অস্বাচ্ছন্দ্যকর হলে যোগব্যায়ামের পর অথবা শপিং মলের এস্কেলেটর ব্যবহারের পর কেনাকাটা করলে এরকম ফলাফল পাওয়া যায়।

* নতুন টাকার নোট ব্যবহার করুন
২০১২ সালে কনজ্যুমার রিসার্চ জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণায় বলা হয়েছে, অধিকাংশ মানুষ যেকোনো জিনিস কেনার ক্ষেত্রে পুরাতন এবং নোংরা টাকার নোটগুলো খরচ করে থাকেন, কেননা তারা নতুন নোটের তাজা ভাবটা হারাতে চান না। গবেষণায় অংশগ্রহণকারী ক্রেতাগণ নতুন নোটের তুলনায় পুরাতন নোট খরচে বেশি আগ্রহী ছিলেন। সুতরাং, শপিংয়ে গেলে নতুন নোট খরচ করার চেষ্টা করুন। এতে আপনার খরচের আগ্রহ কমে যাবে।

* কেনার আগে একটু ভেবে নিন
মনোবিজ্ঞানী এপ্রিল লেন বেনসনের মতে, হুটহাট করে কোনো জিনিস কিনে ফেলার চাইতে কেনার আগে একটু নিজের মতো করে চিন্তাভাবনা করে নিন। তিনি আরো বলেন, কোনো পণ্য পছন্দ হলে সেটি বিক্রেতার হাতে দিন, সেটি থেকে দূরে কোথাও স্থির হয়ে বসুন এবং নিজেকে নিম্নোক্ত প্রশ্নগুলো করুন:
আমি এখানে কেন? পণ্যটি সম্পর্কে আমার অনুভূতি কি? আমার কি এটার প্রয়োজন আছে? কি হবে যদি আমি সামান্য অপেক্ষা করি? আমার কি এটা কেনার সামর্থ আছে? কেনার পর সেটা কোথায় রাখব? অতঃপর, আপনার সেই পণ্য কেনার সামর্থ এবং যুক্তিযুক্ত প্রয়োজনীয়তা থাকলে তবেই সেটি ক্রয় করুন।

* বেশি দোকান ঘোরা পরিহার করুন
ফোর্বস ম্যাগাজিনের এক রিপোর্ট অনুযায়ী, কেনাকাটার সময় আপনি যত দোকান ঘুরবেন, আপনার কেনাকাটার পরিমাণ তত বাড়বে। আপনি হয়তো নিজেকে বোঝাবেন যে, আপনি বুঝে শুনে যাচাইয়ের মাধ্যমে কোনো জিনিস কেনেন। কিন্তু বেশি সময় এবং শ্রম ব্যয় করার ফলে আপনি অবচেতন মনে সেটার পেছনে নিজে থেকে কিছু যুক্তি দাঁড় করানোর চেষ্টা করবেন ফলে আপনার কেনাকাটার পরিমাণ এমনিতেই বেড়ে যাবে।

* অপরিচিত কারো সাহায্য নিন
কাউকে উপহার দেয়ার জন্য কোনো জিনিস কিনবেন, এ বিষয়ে আপনার অনিশ্চয়তা থাকাটা স্বাভাবিক। এক গবেষণায় দেখা গেছে, ৬০ শতাংশ উপহারের জিনিস পরবর্তীতে খুব একটা ব্যবহার হয় না। যদিও আপনি কাউকে ব্যবহার করার জন্যই উপহার দিয়েছিলেন। পাশাপাশি সেই গবেষণায় এটাও দেখা গেছে, আপনি যদি কোনো উপহার বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে অপরিচিত কারো সাহায্য নেন তাহলে সেই পণ্যের বা জিনিসের ব্যবহার হওয়ার সম্ভাবনা অন্তত ১০ শতাংশ বেড়ে যায়। অর্থাৎ এক্ষেত্রে আপনার তুলনায় অপরিচিত সেই ব্যক্তির যথাযথ পণ্য বাছাইয়ের ক্ষমতা বেশি। সুতরাং, কোনো পণ্য নিয়ে অনিশ্চয়তায় ভুগলে অন্য আরেক ক্রেতার পরামর্শ নিন।

* বেশি দামাদামি করে কেনাকাটা এড়িয়ে চলুন
কেনাকাটার সময় দামাদামি না করাটা আপনার কাছে স্ববিরোধী বলে মনে হতে পারে। কিন্তু বেশি লাভ করতে গিয়ে অনেক সময় আপনি ঠকেও যেতে পারেন। ড. ইয়ারো বলেন, আপনার পরিবার বা বন্ধুদের জন্য কেনাকাটা করার পর এটা খুবই স্বাভাবিক যে, আপনার নিজের জন্যও কিছু কিনতে ইচ্ছা করবে। কিন্তু এক্ষেত্রে আপনি দামাদামি করে যে টাকাটা বাঁচিয়েছেন, নিজের জন্য কিছু কিনতে গিয়ে স্বভাবতই আপনি তার চেয়ে অনেক বেশি খরচ করে ফেলবেন।

* বিক্রেতার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হওয়া থেকে বিরত থাকুন
ফোর্বস ম্যাগাজিনের এক রিপোর্ট অনুযায়ী, আপনি কেনাকাটা করতে গিয়ে বিক্রেতাদের সঙ্গে যত কথা বলবেন, আপনার কেনাকাটার আগ্রহ তত বাড়বে। বিষয়টা অনেকটা এমন, যে আপনাকে সাহায্য করল তার মনে আপনি কষ্ট দিতে চান না। ফলস্বরূপ আপনার খরচ বেড়ে যাবে।

* কেনাকাটা থেকে সরে যাওয়ার চেষ্টা করুন
ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের এক তথ্য অনুযায়ী, কোনো জিনিস কেনার তাগিদ, আপনার মস্তিষ্কের সুখদানকারী অংশকে উত্তেজিত করে তোলে। ফলে আপনার স্নায়ুতে ডোপামিন নামক হরমোনের নিঃসরণ হওয়া শুরু হয় এবং আপনার অনিচ্ছা সত্ত্বেও আপনি বিভিন্ন অপ্রয়োজনীয় জিনিস কেনা শুরু করেন। এ বিষয়ে গবেষক টারা পার্কার পোপ বলেন, ‘কোনো জিনিস দেখলে হুট করে সিদ্ধান্ত না নিয়ে প্রয়োজনে পরেরদিন আবার আসুন। এর ফলে আপনি সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন এবং বাজে খরচের হাত থেকে রেহাই পাবেন।’

* ক্রেডিটকার্ড বাড়িতে রাখুন
গবেষণায় দেখা গেছে, মানুষজন নগদ অর্থের তুলনায় ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে কেনাকাটা করতে বেশি পছন্দ করেন। কেননা ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে যতই খরচ হোক সেটা আপাতদৃষ্টিতে চোখে পড়ে না যেমনটা নগদ অর্থ ব্যয়ের ক্ষেত্রে হয়ে থাকে। এজন্য সবসময় ক্রেডিটকার্ড সঙ্গে নিয়ে ঘুরলে আপনার বাজে খরচের পরিমাণ বেড়ে যাবে।

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট

উপরে