মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

গাঁজা খাওয়ার অনুমতি চেয়ে অধ্যাপকের কাছে লিখিত আবেদন করেছিল জাবির ছাত্র!

প্রকাশের সময়: ৭:০১ অপরাহ্ণ - সোমবার | সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮


কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

জাবি প্রতিনিধি: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের এক ছাত্রের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। হয়রানির বিচার চেয়ে সোমবার বিভাগীয় সভাপতি বরাবর অভিযোগ দিয়েছেন একই বিভাগের এক ছাত্রী। অভিযোগপত্র সূত্রে জানা যায়, অভিযুক্ত ছাত্রের নাম কিশোর কুমার দাস। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের ৪১তম ব্যাচ ও মওলানা ভাসানি হলের আবাসিক ছাত্র। তবে তিনি হলে থাকেন না।

বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল মান্নান চৌধুরী বলেন, ‘ওই ছেলে (কিশোর কুমার) মাদকাসক্ত। সে এর আগে আমার কাছে গাঁজা খাওয়ার অনুমতি চেয়ে লিখিত আবেদন করেছিল। পরে আমি সেই আবেদন প্রক্টর বরাবর পাঠিয়ে দিয়েছি। সে বলে গাঁজা খুবই উপকারী। আজও এক ছাত্রী তার বিরুদ্ধে ইভটিজিংয়ের অভিযোগ নিয়ে এসেছিল। আমি তাদেরকে যৌন নিপীড়ন বিরোধী সেলে অভিযোগ করতে বলেছি। কারণ যৌন নিপীড়নের বিষয়ে বিভাগ কোন ব্যবস্থা নিতে পারেনা।’

লিখিত অভিযোগ ওই ছাত্রী বলেন, ‘কিশোর কুমার দাস গতকাল (রবিবার) দুপুর দেড়টার দিকে বিভাগের ছাদে আমাকে যৌন হয়রানিমূলক অশালীন কথাবার্তা বলেন। এই ঘটনায় প্রতিবাদ করলে আমাকে দেখে নেয়ার হুমকি দেন। এই অবস্থায় আমি বিভাগে যাতায়াতের জন্য অনিরাপদ বোধ করছি। তাই বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুযায়ী তার সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।’
ভুক্তভোগী ছাত্রীর সহপাঠীরা জানান, সোমবার বিভাগের সিঁড়ি দিয়ে নামার সময় কিশোর কুমার দাস ফের ওই ছাত্রীকে যৌন হয়রানিমূলক কথা বলে। পরে সহপাঠীরা কিশোর কুমারকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে গেলে সে কাপড় কাটার কাচি দিয়ে তাদেরকে মারতে আসে। এ সময় শিক্ষার্থীরা তাকে গণপিঠুনি দেয়। পরে শিক্ষকরা তাকে উদ্ধার করে।

বিষয়টি জানতে কিশোর কুমারের ব্যাক্তিগত মোবাইলে একাধিকবার কল করা হলেও সেটি বন্ধ পাওয়া যায়।

যৌন নিপীড়ন বিরোধী সেলের পরিচালক অধ্যাপক ড. রাশেদা আখতার বলেন, ‘বিষয়টি জেনেছি। তবে এখনো কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করবো।’

প্রসঙ্গত, এর আগেও তার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানি ও ইভটিজিংয়ের অভিযোগ করেছেন কয়েকজন ছাত্রী।

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

উপরে