বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ | ১১ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

তফসিল ঘোষণা ৩০ অক্টোবর

প্রকাশের সময়: ৭:০৮ অপরাহ্ণ - সোমবার | সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

আগামী ডিসেম্বরের শেষে ভোট হবে-এটা আগেই জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন। আর এই ভোট গ্রহণে ৩০ অক্টোবরের পর যে কোনো দিন তফসিল ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ।

সোমবার (১০ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ।

নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে করা এক প্রশ্নের জবাবে সচিব বলেন, ‘তফসিল ঘোষণার আগে যে সব কাজ থাকে তার ৮০ শতাংশই শেষ হয়েছে। সংসদীয় আসনের সীমানা নির্ধারণের কাজও শেষ হয়েছে।’

তফসিল ঘোষণার পরবর্তী কাজের বর্ণনা দিয়ে তিনি বলেন, ‘তফসিল ঘোষণার পর প্রিজাইডিং ও পুলিং অফিসারদের তালিকা তৈরি করা হবে। এবং তাদের যথাযথ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। কেননা অনেকেই বদলি অথবা অবসরে চলে যান, তাই নির্বাচনের আগে এই তালিকা দেয়া হবে।’

তিনি বলেন, ‘আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দুই লাখ সাত থেকে আট হাজার ভোট কেন্দ্র হতে পারে। ফলে আমাদের ৪০ হাজার প্রিজাইডিং অফিসার, দুই লাখের মতো সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার এবং এর চাইতে দ্বিগুণ বেশি পুলিং অফিসারসহ সাত লাখের মতো ভোটগ্রহণ কর্মকর্তার প্রয়োজন হতে পারে।’

ভোট কেন্দ্র হালনাগাদের বিষয়ে ইসি সচিব বলেন, ‘ভোটগ্রহণের ২৫ দিন পূর্বে ভোটকেন্দ্র হালনাগাদের তালিকা চূড়ান্ত করা হবে। জেলা বা উপজেলা পর্যায় থেকে যে তালিকা পাঠাবে, তা আমরা তদন্ত করব নীতিমালা অনুযায়ী তৈরি করা হয়েছে কি না। পরে তা গান গেজেড আকারে প্রকাশ করা হবে এবং আগামী সংসদ নির্বাচনের জন্য কার্যকর হবে।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিক দল মানেই হল নির্বাচন করা, নির্বাচনের মাঠে থাকা। তাই আমরা আশা করবো সকল রাজনৈতিক দল আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে।’

সচিব বলেন, ‘৩০০ আসনের সীমানা নির্ধারণ এবং ১০ কোটি ৪১ লাখ ভোটার তালিকা করা সম্পন্ন হয়েছে, সিডিও প্রস্তুত করা হয়েছে। আগামী ২৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সকল জেলা এবং উপজেলাতে সিডি পাঠিয়ে দেয়া হবে। ওখানে এই সিডি থেকেই ভোটার তালিকা মুদ্রণ করা হবে। এর পরবর্তীতে ভোট কেন্দ্র স্থাপন করা হবে।’

ইতিমধ্যে যে খসড়া ভোট কেন্দ্রের তালিকা পেয়েছি তা হল ৪০,১৯৯ টি। এটা গত ৫ আগষ্ট খসড়া তালিকায় প্রকাশ করা হয়েছে। এর উপরে আপত্তি বা আবেদন নিবেদন, বাড়ানো বা কমানো, স্থানান্তর এর উপর আমরা ৩০ আগষ্টের মধ্যে দরখাস্ত চেয়েছিলাম, অনেকগুলো দরখাস্ত পেয়েছি।’

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

উপরে