বুধবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৮ | ২রা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

ক্র্যাশ ল্যান্ডিং নিয়ে ইউএস-বাংলার বক্তব্য (ভিডিও)

প্রকাশের সময়: ৬:৩১ অপরাহ্ণ - বুধবার | সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮

 

 

 

 

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) কামরুল ইসলাম বলেছেন, সকাল সাড়ে ১১টায় ঢাকা থেকে কক্সবাজারগামী ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিএস-১৪১ ফ্লাইটটি কক্সবাজার এয়ারপোর্টে পৌঁছানোর পূর্বমুহূর্তে টেকনিক্যাল কারণে পাইলট জরুরি অবতরণের প্রয়োজন অনুভব করেন। কিন্তু কক্সবাজার এয়ারপোর্টে পর্যাপ্ত সুযোগ-সুবিধা না থাকায় চট্টগ্রামের হযরত শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের সিদ্ধান্ত নেন। পরে তিনি চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলার ফ্লাইটটি অবতরণ করেন।

তিনি জানান, ঘটনার পর ফ্লাইটের যাত্রী, কেবিন ক্রু ও পাইলটসহ সবাই নিরাপদ এয়ারক্রাফট থেকে বের হয়ে আসেন। যাত্রী ও ক্রুসহ উড়োজাহাজের কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা থেকে ইউএস-বাংলার ওই ফ্লাইটটি উড্ডয়নের পর সামনের চাকায় ত্রুটি দেখা দেয়। এটি চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করার সময় দুর্ঘটনায় পতিত হয়। ওই সময় বিমানটির সামনের দিক ক্ষতিগ্রস্তও হয়।

কক্সবাজারগামী ফ্লাইটটি দুর্ঘটনায় পড়ার পর থেকে বিমানবন্দরে ফ্লাইট উঠানামা বন্ধ রয়েছে।

দুর্ঘটনার পর ফায়ার সার্ভিসের বেশ কয়েকটি ইউনিট বিমানবন্দরে প্রবেশ করে বলে জানান অপেক্ষমাণ যাত্রী ও সেখানকার প্রত্যক্ষদর্শীরা।

বিমানবন্দরের অপর একটি সূত্র জানায়, বিমানটি জরুরি অবতরণের সময় সামনের চাকাটি সচল ছিল না। ভাগ্যক্রমে বিমানটিতে আগুন ধরেনি। ফলে সকল যাত্রী নিরাপদে নেমে আসতে সক্ষম হন।

এ ব্যাপারে তাৎক্ষণিকভাবে ইউএস-বাংলার জনসংযোগ মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) কামরুল ইসলাম বলেন, ‘কক্সবাজার-ঢাকাগামী ইউএস-বাংলার বিএফ  ১৪১ বোয়িং-৭৩৭ উড়োজাহাজের জরুরী অবতরণ করেছে। যাত্রীরা সবাই নিরাপদ আছে। তাদেরকে টামির্মিনালে নেওয়া হয়েছে।

ওই ফ্লাইটটিতে মোট ১৬৩ জন যাত্রী ছিল। এর মধ্যে ১৫৩ জন প্রাপ্ত বয়স্ক, আর অপ্রাপ্ত বয়স্ক ছিল ১১ জন।

 

 

 

 

সূত্র- পরিবর্তন
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

উপরে