বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ | ৫ই পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

১৩ জন প্রার্থী লড়তে তারানার সঙ্গে

প্রকাশের সময়: ৮:৪৮ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার | নভেম্বর ১৩, ২০১৮

 

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়ার জন্য টাঙ্গাইলে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন কিনেছেন ৭৪ জন প্রার্থী। শুক্রবার থেকে সোমবার পর্যন্ত উৎসব মুখর পরিবেশে ঢাকা দলীয় প্রধানের কার্যালয় থেকে এ মনোনয়ন কেনেন তারা।

এদের মধ্যে প্রতিমন্ত্রী, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা, বর্তমান এমপি, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের আওয়ামী লীগ নেতা রয়েছেন। টাঙ্গাইলের মোট সংসদীয় আসন আটটি। এর মধ্যে টাঙ্গাইল-৬ আসনে তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের সঙ্গে লড়তে চান ১৩ জন প্রার্থী।

টাঙ্গাইল-১ (ধনবাড়ী-মধুপুর) আসনে মোট চারজন মনোনয়ন কিনেছেন। এরা হলেন- বর্তমান এমপি ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ডা. আব্দুল রাজ্জাক, অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমান, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সদস্য মাসুদ রানা এবং ব্যবসায়ী সবুজ তালুকদার।

টাঙ্গাইল-২ (ভূঞাপুর-গোপালপুর) আসন থেকে ১৭ জন মনোনয়ন কিনেছেন। এরা হলেন- বর্তমান এমপি খন্দকার আসাদুজ্জামান, বর্তমান সংসদ সদস্যের ছেলে মশিউজ্জামান রোমেল, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আশরাফউজ্জামান স্মৃতি, জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক তানভীর হাসান ছোটমনি, গোপালপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইউনুস ইসলাম তালুকদার ঠান্ডু, গোপালপুর উপজেলার আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি খন্দকার গিয়াস উদ্দিন, ভূঞাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আব্দুল হালিম, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক মুক্তিযোদ্ধা ড. নুরুন নবী, মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম, হারুনুর রশীদ (বীর প্রতীক), অ্যাডভোকেট শামসুল আলম, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাবেক নেতা রফিকুল ইলমাম মঞ্জু, ভূঞাপুর পৌরসভার মেয়র মাকসুদুল হক, জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল লতিফ, একেএম শহিদুর রহমান, আসলাম খান এবং সাঈদ চৌধুরী।

Tangail-Mononoyon

টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) আসন থেকে ১১ জন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন কিনেছেন। এরা হলেন- বর্তমান সংসদ সদস্য আমানুর রহমান খান রানা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শিল্পপতি সৈয়দ আবু ইউসুফ আব্দুল্লাহ তুহিন, ঘাটাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক শহিদুল ইসলাম লেবু, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শহিদুল ইসলাম, তেজগাঁও কলেজের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. অধীর চন্দ্র সরকার, সাবেক এমপি প্রয়াত ডা. মতিউর রহমানের ছেলে তানভীর রহমান, টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট এস আকবার খান, সোনালী ব্যাংকের পরিচালক মুক্তিযোদ্ধা ড. নুরুল আলম তালুকদার, সরকারি জিবিজি কলেজের সহকারী অধ্যাপক ওয়াহেদ শরিফ সিদ্দিকী এবং মহিলা লীগের সহ-সভাপতি কোহিনূর হোসেন খান।

টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসন থেকে পাঁচজন মনোনয়ন কিনেছেন। এরা হলেন- বর্তমান এমপি হাসান ইমান খান সোহেল হাজারি, কালিহাতী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোজহারুল ইসলাম তালুকদার ঠান্ডু, টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক সোলায়মান হাসান, এফবিসিসিআইর পরিচালক ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা আবু নাসের এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ব্যবসায়ী ইঞ্জিনিয়ার লিয়াকত আলী।

Tangail-Mononoyon

টাঙ্গাইল-৫ (সদর) আসন থেকে আওয়ামী লীগের সাতজন মনোনয়ন কিনেছেন। এরা হলেন- বর্তমান এমপি ছানোয়ার হোসেন, সংরক্ষিত আসনের এমপি মনোয়ারা বেগম, পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জামিলুর রহমান মিরন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক নাহার আহমেদ, কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক মেহের নীগার তন্ময়, কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির অর্থ ও পরিকল্পনা কমিটির সহ-সম্পাদক জিয়াউল আবেদীন এবং প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মান্নানের ছেলে আনিছুর রহমান শাহেদ।

টাঙ্গাইল-৬ (দেলদুয়ার-নাগরপুর) আসন থেকে ১৩ জন মনোনয়ন কিনেছেন। এরা হলেন- তথ্য প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট তারানা হালিম, জেলা আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক এবং ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সাবেক সভাপতি আহসানুল ইসলাম টিটু, বর্তমান সংসদ সদস্য খন্দকার আবদুল বাতেন, নাগরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাকিরুল ইসলাম উইলিয়াম, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ ও দেলদুয়ার উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ব্যারিস্টার আশরাফুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সম্পাদক তারেক শামস খান হিমু, জেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক ইনসাফ আলী ওসমানী, কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সহ-সভাপতি কাজী এটিএম আনিসুর রহমান বুলবুল, নাগরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য শেখ আব্দুর রহিম ইলিয়াস, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সালাম প্রামাণিক, কেন্দ্রীয় আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা লীগের সহ-সভাপতি হামিদুর রহমান ঝন্টু, জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক খোরশেদ আলম বাবুল ও দেলদুয়ার উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা মাহমুদ উল্লাহ লিলু।

Tangail-Mononoyon

টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) আসন থেকে ছয়জন মনোনয়ন কিনেছেন। এরা হলেন- সংসদ সদস্য একাব্বর হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য ও টাঙ্গাইল চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি খান আহমেদ শুভ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ ওয়াহিদ ইকবাল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মীর শরীফ মাহমুদ, অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মেজর (অব.) খন্দকার আব্দুল হাফিজ এবং মির্জাপুরের সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ছালমা ছালাম উর্মি।

টাঙ্গাইল-৮ (সখীপুর-বাসাইল) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন কিনেছেন ১১ জন। এরা হলেন- স্থানীয় সংসদ সদস্য অনুপম শাহজাহান জয়, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জোয়াহেরুল ইসলাম ভিপি জোয়াহের, সখীপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শওকত সিকদার, অধ্যক্ষ সাঈদ আজাদ, আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক প্রকৌশলী আতাউল মাহমুদ, প্রকৌশলী আসাদুল হক তালুকদার, আওয়ামী লীগ নেতা জুয়েল সরকার, ডা. জুয়েল, বাসাইল উপজেলা তাঁতীলীগের সভাপতি বদিউজ্জামান বিদ্যুত, জাতীয় শ্রমিক লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুস সালাম খান ও আওয়ামী লীগ নেতা সরকার মোহাম্মদ আরিফুজ্জামান ফারুক।

উপরে