রবিবার, ২১ এপ্রিল, ২০১৯ | ৮ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

লামায় মতবিনিময় সভা করলেন বান্দরবান জেলা প্রশাসক দাউদুল ইসলাম

প্রকাশের সময়: ৫:২৭ অপরাহ্ণ - বৃহস্পতিবার | জানুয়ারি ১৭, ২০১৯

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

অরুপম বড়ুয়া লামা (বান্দরবান)প্রতিনিধি: বান্দরবানের লামায় মতবিনিময় সভা করলেন বান্দরবান জেলা প্রশাসক দাউদুল ইসলাম। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা পরিষদের সভা কক্ষে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় জেলা প্রশাসক বলেন, শিক্ষা ছাড়া কোনো জাতির উন্নতি হতে পারে না। লামা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক সংকট নিরসনে তিনি ব্যক্তিগতভাবেও ভুমিকা রাখবেন বলে আশ্বস্থ করেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-এ জান্নাত রুমি, পৌর মেয়র মো: জহিরুল ইসলাম, জেলা পরিষদ সদস্য মোস্তফা জামাল, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শরাবান তহুরা, ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা আপ্পেহ্লা রাজু নাহা, বীরমুক্তিযোদ্ধা শেখ মাহবুবুর রহমান। মতবিনিময় সভায় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগন, বিভিন্ন দপ্তরের বিভাগীয় প্রধান, সাংবাদিক, শিক্ষকসহ গন্যমান্য ব্যক্তিদ্বয় উপস্থিত থেকে জেলা প্রশাসকের সাথে পরিচিত হন এবং বিভিন্ন বিষয়ে মতবিনিময় করেন। এসময় লামা উপজেলা ও বিভিন্ন ইউনিয়ন সমুহের নানান সমস্য ও সম্ভাবনার বিষয়ে আলোকপাত করা হয়। ইউনিয়ন পরিষদ সমুহের নিজস্ব আয়ের সম্ভাব্য দিকগুলো তুলে ধরে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে এর সুরাহা-রাজস্ব আয়ের বাধা দূরীকরণের দাবী করেন লামা সদর ইউপি চেয়ারম্যান মিন্টু কুমার সেন। উপজেলার সার্বিক আইন শৃঙ্খলায় সন্তোস প্রকাশ করে, আশ্রায়ন প্রকল্প সমুহের সংস্কার, ভুমি জটিলতা নিরসন পূর্বক আশ্রিত মানুষের সেবা প্রদানে বিদ্যমান সমস্যা দূরীকরণের দাবী জানান, গজালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান বাথোয়াইচিং মার্মা, মিরিঞ্জা পর্যটনকে ঢেলে সাজানোসহ লামায় পর্যটন শিল্পের বিকাশের আহŸান জানান, জেলা পরিষদ সদস্য মোস্তফা জামাল, লামা পৌরশহরসহ আশপাশের গ্রামগুলোকে বন্যার কবল থেকে রক্ষায়, নদীর গতি পরিবর্তনের বিষয়টি তুলে ধরেন পৌর মেয়র মো: জহিরুল ইসলাম। লামা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক সংকট নিরসনে প্রয়োজনীয় সহযোগিতার দাবী জানান ভার প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক। লামা উপজেলা পরিষদের সম্মুখ থেকে দক্ষিণ দিকে প্রায় পৌনে এক কিলোমটিার সড়ক উঁচু করার প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা দেন লামা প্রেসক্লাব সেক্রেটারী মো.কামরুজ্জামান। উপজেলায় মাদক নিয়ন্ত্রণ ও আইন শৃঙ্খলার বিষয়ে সর্বদা সজাগ থেকে এসব কিছুর নিবিড় তদারকিতে লামা থানার পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে বলে জানান ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আপ্পেহ্লা রাজু নাহা। এর আগে লামা পৌরসভা ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পৃথক দুটি ক্রেষ্ট প্রদান করা হয় জেলা প্রশাসককে। মতবিনিময় সভায় সকলের বক্তব্য শ্রবণ শেষে জেলা প্রশাসক মো: দাউদুল ইসলাম বলেন, এসব সমসম্যা সমাধানে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রীর মনোযোগ আকর্ষণসহ সংশ্লিষ্ট উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষের কাছে পত্র প্রেরেণ করবো। জেলা প্রশাসক বলেন, পরিবেশ প্রকৃতি ঠিক রেখে মানুষের কর্মোপুযুগ সৃষ্টি করতে হবে। এই উপজেলায় টেকনিকেল স্কুল প্রতিষ্ঠিত হবে বলে জানান। প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, আপনারা এমন একজন মন্ত্রী পেয়েছেন, যিনি প্রতিটি মানুষের কথা ভাবেন এবং উন্নয়নের প্রয়োজনীয়তা নিজ থেকে উপলব্দি করে তা বাস্তবায়ন করে থাকেন, সুতরাং সেদিক থেকে আপনারা সু-ভাগ্যবান। সভা শেষে তিনি একটি বাড়ি একটি কামার প্রকল্পের আওতায় বিভিন্ন ইউনিয়নরে উপকারভোগিদের মাঝে ঋণের নগদ অর্থ তুলে দেন। একই দিন তিনি মিরিঞ্জিা পর্যটন কেন্দ্র পরিদর্শন ও এর উন্নয়নের সম্ভাব্যদিকগুলো সাক্ষস অবলোকন করেন।

 

উপরে