সোমবার, ২৬ আগস্ট, ২০১৯ | ১১ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

দুই বন্ধু মিলে ধর্ষণ করল স্কুলছাত্রীকে

প্রকাশের সময়: ১:৪৭ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার | এপ্রিল ২৩, ২০১৯

সংগৃহীত ছবি

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

ডেস্ক রিপোর্ট: ফরিদপুরের সালথায় দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ এবং ধর্ষণের চিত্র মোবাইলে ধারণ করে ফেসবুকে প্রচারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সালথা থানা পুলিশ এ অভিযোগে শাকিল নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

জানা গেছে, উপজেলার একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে যুগীকান্দা লক্ষনদিয়া গ্রামের মাসুদ ফকিরের ছেলে শাকিল ও তার বন্ধু বজলু মাতুব্বরের ছেলে জাবের মাতুব্বর ধর্ষণ করে। এ সময় ধর্ষণের চিত্র মোবাইলে ভিডিও করে। ধর্ষণকালে এ কথা কাউকে জানালে ওই মেয়েসহ তার মা বাবা ও পরিবারের সবাইকে খুন করে ফেলবে বলে ধর্ষণকারীরা হুমকি দিয়ে যায়।

লোকলজ্জা ও প্রাণের ভয়ে মেয়েটি কাউকে এ কথা না বললেও ধর্ষক দুজন পরবর্তীতে সে ভিডিও নিজেরা ফেসবুকে প্রচার করে। ফেসবুকে ভিডিওটি ভাইরাল হলে বিষয়টি এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্ঠি করে। পরে বাধ্য হয়ে মেয়েটি তার অভিভাবককে ঘটনাটি জানায়। ভুক্তভোগী ঐ শিক্ষার্থীর অভিভাবকেরা এলাকার সমাজপতিদের নিকট বিচারের দাবি জানালেও কোন বিচার পায়নি।

ভুক্তভোগী মেয়েটির ভাই বলেন, ‘গত ৫ এপ্রিল রাত নয়টার দিকে তার বোন প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘরের বাইরে গেলে শাকিল ও জাবের তার মুখ চেপে ধরে বাড়ির পাশে বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ সময় তারা ধর্ষণের চিত্র মোবাইলে ধারণ করে তা আবার ফেসবুকে প্রচার করে। এ সময় ওরা আমার বোনকে হুমকি দেয় একথা কাউকে বললে খুন করে ফেলবে। তাই ও আমাদের কিছু বলেনি। পরে সে ভিডিও মোবাইলে ছড়িয়ে পড়লে আমরা বোনকে চাপ প্রযোগ করলে সব খুলে বলে। এ ঘটনায় মেয়েটির ভাই বাদী হয়ে সালথা থানায় মামলা দায়ের করে।’

পুলিশ ঘটনার সঙ্গে জড়িত শাকিলকে গ্রেপ্তার করেছে।

সালথা থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার হোসেন বলেন, ‘ঘটনার মূল অপরাধী শাকিলকে গ্রেপ্তার করেছি। জাবেরকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’

 

সূত্র-  বিডি জার্নাল

 

উপরে