রবিবার, ১৬ জুন, ২০১৯ | ২রা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

ঈদের পরই সরকারি মাধ্যমিকে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা

প্রকাশের সময়: ৫:৪৭ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার | মে ২১, ২০১৯

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

ডেস্ক রিপোর্ট : প্রায় ৭ মাস আগে সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের আবেদন কার্যক্রম শেষ হয়। কিন্তু এতোদিনেও পরীক্ষার দিন-তারিখ চূড়ান্ত না হওয়া প্রায় আড়াই লাখ আবেদনকারী হতাশ হয়েছে পড়েছেন। তবে সরকারি কর্ম কমিশন (বিপিএসসি) সূত্র জানা যায়, সবকিছু ঠিক থাকলে ঈদের পর আগামী জুন মাসের শেষের দিকে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে পারে।

পিএসসির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (নন-ক্যাডার) নজরুল ইসলাম বলেন, সম্প্রতি পিএসসির এক সভায় আগামী জুনের শেষের দিকে পরীক্ষা গ্রহণের নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে দিন-তারিখ চূড়ান্ত করা হয়নি। পরীক্ষা সংক্রান্ত অন্যান্য কার্যক্রম শেষ করা হয়েছে। শিগগিরই পরীক্ষার তারিখ চূড়ান্ত করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।

সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগে গত বছরের ৯ সেপ্টেম্বর বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। ১০ সেপ্টেম্বর দুপুর ১২টা থেকে আবেদন শুরু হয়ে চলে ৮ অক্টোবর সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত।

সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদটিতকে দ্বিতীয় শ্রেণির মর্যাদা দেওয়ার পর প্রথমবারের মতো সরাসরি এ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলায় ৩৬৫ জন, ইংরেজিতে ১০৬ জন, গণিতে ২০৫ জন, সামাজিক বিজ্ঞানে ৮৩ জন, ভৌতবিজ্ঞানে ১০ জন, জীববিজ্ঞান ১১৮ জন, ব্যবসায় শিক্ষায় আট জন, ভূগোলে ৫৪ জন, চারুকলায় ৯২ জন, শারীরিক শিক্ষায় ৯৩ জন, ধর্মে ১৭২ জন এবং কৃষি শিক্ষায় ৭২ জন সহকারী শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে।

মোট একহাজার ৩৭৮টি পদের জন্য আবেদন করেছেন দুই লাখ ৪৮ হাজার ৩২২ জন।

নিয়োগ পরীক্ষা হিসেবে চারটি বিষয়ে ২০০ নম্বরে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তার মধ্যে বাংলা ৫০ নম্বর, ইংরেজিতে ৫০, সাধারণ জ্ঞান (বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি) ৪০ এবং মানসিক দক্ষতা বিষয়ে ৬০ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক আকারে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিটি পরীক্ষার জন্য ২ ঘণ্টা সময় দেয়া হবে।

উপরে