শুক্রবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৯ | ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

৫ জুলাই জিলকদ মাস শুরু

প্রকাশের সময়: ১০:০১ পূর্বাহ্ণ - বৃহস্পতিবার | জুলাই ৪, ২০১৯

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

ডেস্ক রিপোর্ট : বাংলাদেশের আকাশে বুধবার (কোথাও ১৪৪০ হিজরি সনের পবিত্র জিলকদ মাসের চাঁদ দেখার সংবাদ পাওয়া যায়নি। ফলে বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) পবিত্র শাওয়াল মাস ৩০ দিন পূর্ণ হবে এবং আগামী শুক্রবার (৫ জুলাই) থেকে পবিত্র জিলকদ মাস গণনা শুরু হবে।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহর সভাপতিত্বে বুধবার সন্ধ্যায় ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মোকাররম সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
সভায় ১৪৪০ হিজরি সনের পবিত্র জিলকদ মাসের চাঁদ দেখা সম্পর্কে সব জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়, সব বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের সব কার্যালয় এবং বাংলাদেশ মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠান থেকে প্রাপ্ত তথ্য পর্যালোচনা করে এবং বিশিষ্ট আলেম-ওলামার সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সভায় ধর্ম সচিব মো. আনিছুর রহমান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল, ওয়াকফ প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলাম, তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. নূরুল করিম, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্ম-সচিব মো. সামসুল আরেফিন, বিটিভির পরিচালক মো. জহিরুল ইসলাম মিয়া উপস্থিত ছিলেন।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন সরকারি মাদ্রাসা-ই-আলিয়ার অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আলমগীর রহমান, সিনিয়র উপ-প্রধান তথ্য অফিসার মো. শাহেনুর মিয়া, ঢাকা জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (জেনারেল) মো. শাহিদুজ্জামান, বাংলাদেশ মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠানের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা শাহ মো. মিজানুর রহমান, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের উপ-পরিচালক মো. আজিজুর রহমান, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, লালবাগ শাহী জামে মসজিদের খতিব মুফতি মুহাম্মদ নিয়ামতুল্লাহ ও চকবাজার শাহী মসজিদের খতিব মাওলানা শেখ নাঈম রেজওয়ান।

সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন গোপালগঞ্জের গওহরডাঙ্গা মাদ্রাসার মুহতামিম মুফতি রুহুল আমিন, বেফাকের সহ-সভাপতি মুফতি মো. ফয়জুল্লাহ, লালবাগ মাদ্রাসার প্রধান মুফতি মাওলানা ইয়াহ্ইয়া, তেজগাঁও মদীনাতুল উলুম কামিল মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা আব্দুর রাজ্জাক আল আযহারী ও ফরিদাবাদ মাদ্রাসার মুফতী মু. নূরুল আমিন প্রমুখ।

উপরে