মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট, ২০১৯ | ৫ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

পর্তুগালে ত্যাগ ও মহিমায় ঈদ-উল-আজহা উদযাপন

প্রকাশের সময়: ৪:৩৯ অপরাহ্ণ - সোমবার | আগস্ট ১২, ২০১৯

currentnews

যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যর মধ্য দিয়ে পর্তুগালের রাজধানী লিসবন ও বাণিজ্যিক বন্দর নগরী শহর পোর্তো, পর্যটন ও কৃষি সমৃদ্ধ শহর আলগ্রাব, স্থাপত্য নগরী কোইমব্রায় পালিত হল ঈদুল আযহা।

বাংলাদেশি অধ্যুষিত পর্তুগালের লিসবনের মাতৃ মনিজ পার্কের মাঠে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ঈদের বড় জামাত সকাল ৮টায় অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশ নেয় প্রবাসী বাংলাদেশীসহ পর্তুগালে অবস্থারত বিভিন্ন দেশের প্রায় পাঁচ হাজার মুসল্লী। লিসবন বাইতুল মোকাররম মসজিদের খতিব মাওলানা অধ্যাপক আবু সায়িদ ঈদ উল আজহার জামাত পরিচালনা করেন। নামাজ পূর্বে ঈদ উল আজহার তাৎপর্য নিয়ে বয়ান করেন মাওলানা ইব্রাহিম মোল্লা।

পর্তুগালের নিযুক্ত বাংলাদেশের দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত মো. রুহুল আলম সিদ্দিকী, শান্তা মারিয়ম মায়রের
কাউন্সিলর রানা তাসলিম উদ্দিন সহ দূতাবাসের কর্মকর্তা এবং পর্তুগাল বাংলাদেশ কমিনিটির বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও আঞ্চলিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশির বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ অংশ নেন।

এছাড়াও বাণিজ্যিক বন্দর নগরী ও বাণিজ্যিক শহর পোর্তোর বাঙ্গালি অধ্যুষিত রুয়া দে লউরেইরোর হযরত হামজা (রঃ) মসজিদে সকাল ৮ ও ৯ঃ৩০ মিনিটে ঈদুল আজহার দুইটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় পোর্তোর বাংলাদেশ কমিনিটির নেতৃবৃন্দসহ ঈদের জামাতে পোর্তোয় বসবাসরত বাংলাদেশি বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ অংশ নেন।

এ সময় প্রবাসী বাংলাদেশিদের পাশাপাশি আফ্রিকা এবং পশ্চিমা বিশ্বের বিভন্ন দেশের অন্য্যন্য কমিউনিটির ধর্মাবলম্বী মুসলমানদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে ঈদের জামাতগুলোতে। রং-বেরঙের বাহারি পোশাক গায়ে ঈদের নামাজ আদায় করেন বিভিন্ন দেশের মানুষ। এর ফলে ঈদগায়ে সৃষ্টি হয় এক উৎসবমুখর পরিবেশ।

এছাড়া লিসবনের সেন্ট্রাল জামে মসজিদে তিনটি, মাতৃমনিজ জামে মসজিদ, বায়তুল মোকারম ইসলামিক সেন্টার, ওধিবিলাস ঈদগাহ একটি, ওধিবিলাস জামে মসজিদে দুইটি, আমাদোরার জামে মসজিদ, রিবাইরালো বাংলাদেশি জামে মসজিদ, লংগাইরা-আলমোগরাভ, আলগ্রাবে বাঙ্গালি অধ্যুষিত এলাকায়, কাসকাইস বাংলাদেশি জামে মসজিদে একটি ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। বন্দর নগরী ও বাণিজ্যিক শহর পোর্তোর মিনদেলো পাইকারি বাজার মসজিদে একটি, কোইমব্রা জামে মসজিদে সকাল একটি ঈদের জামাতসহ পর্তুগালের বিভিন্ন শহরের আশ-পাশের বিভিন্ন মসজিদেও উল্লেখযোগ্য বিপুল সংখ্যক মুসলমান ঈদ উৎসব পালন করেন।

উপরে