বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৯ | ২রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

কথা বলছে হাতের চুড়ি, সচেতন হচ্ছেন গ্রামীণ মায়েরা!

প্রকাশের সময়: ১০:৫২ পূর্বাহ্ণ - শনিবার | সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯

 

 

কারেন্টনিউজ ডটকম ডটবিডি

ইউনিসেফের হিসাব বলছে, বিশ্বের সর্বোচ্চ নবজাতক ও মাতৃমৃত্যুকবলিত দেশগুলোর একটি বাংলাদেশ। আর গর্ভবতী নারী ও নবজাতকদের স্বাস্থ্যঝুঁকির অন্যতম কারণ অসচেতনতা। তবে একেবারে অজপাড়াগাঁতে এ দৃশ্যপটে পরিবর্তন এনেছে একটি প্রযুক্তি। হাতে থাকা বালা বা চুড়ি বলে দিচ্ছে অন্তঃসত্ত্বা ও নবজাতকদের কখন কী করতে হবে। ইউনিসেফ বলছে, ২০১৭ সালে দেশে মারা যায় ৬২ হাজার নবজাতক। আর প্রতিবছর পাঁচ হাজারের বেশি নারীর মৃত্যু হয় গর্ভকালীন, প্রসবকালীন ও সন্তান জন্ম দেওয়ার পর সৃষ্ট জটিলতায়। প্রতিদিন ২৩০ জন শিশু মৃত অবস্থায় প্রসব হয়। গর্ভধারণকালে প্রতি তিনজনে মাত্র একজন মা প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণ করেন।

গ্রামে প্রযুক্তির ছোঁয়া পৌঁছে দেওয়া সব সময়ই চ্যালেঞ্জিং। তবে মোবাইল ফোন সেই চ্যালেঞ্জ অনেকটাই সহজ করে দিয়েছে। গ্রামীণ অন্তঃসত্ত্বা নারীদের কাছে নানা রকম নির্দেশনা পৌঁছে মোবাইল ফোনের কল্যাণে। কিন্তু যেখানে নেটওয়ার্কই নেই কিংবা ফোন ব্যবহারের সুযোগ নেই, তাদের জন্য আশীর্বাদ হয়েছে বিশেষ বালা বা চুড়ি।’

এই অভিনব প্রযুক্তি দেখা গেছে দক্ষিণাঞ্চলের জেলা সাতক্ষীরা ও খুলনায়। একটি আন্তর্জাতিক সাহায্য সংস্থার সহায়তায় দুই হাজারের ওপর নারীর হাতে উঠেছে এই স্মার্ট পরিধানযোগ্য ডিভাইস।

বালা ব্যবহারকারী আয়েশা আক্তার বলেন, ‘আমিও তাজ্জব হয়ে গেছিলাম যে চুড়িতে কথা বলবে, এ আবার কেমন কথা! বৃহস্পতি আর সোমবার ৫টায় একটা করে বার্তা দেয়। মোবাইলের মতো বার্তা দেয়। প্রথম দিন আমি যখন শুনলাম, তখন সবাইরে বললাম, ওয়ার্ল্ড ভিশন থেকে আমারে একটা চুড়ি দিছে, এ চুড়ি কথা বলে। আমি শোনার পর কেউ শুনতে চাইলে চুড়ির বড় বোতামে চাপ দিয়ে আগের বার্তাটি সবাইকে শোনাই।’ সূত্র : বিবিসি।

উপরে