রবিবার, ০৫ জুলাই, ২০২০ | ২১শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

আকবর আলী যখন সত্যিই ‘আকবর দ্য গ্রেট’

প্রকাশের সময়: ৪:২০ অপরাহ্ণ - শুক্রবার | মে ২৯, ২০২০

currentnews

যুব ক্রিকেটে বিশ্বসেরা হওয়ার মুহূর্ত থেকে তার প্রশংসায় পঞ্চমুখ সবাই। ভারতীয় যুবাদের হারিয়ে বিশ্বকাপ বিজয়ের সঙ্গে সঙ্গেই আকবর আলী নামটি বাংলাদেশের ক্রিকেট অনুরাগীদের মনে গাঁথা হয়ে গেছে। সেই সঙ্গে তার কিছু প্রশংসাসূচক নামও হয়েছে।

বলার অপেক্ষা রাখে না, সেটা হয়েছে আকবর আলীর ম্যাচ জেতানো ব্যাটিংয়ের কারণে। প্রচন্ড চাপের মধ্যেও একজন ১৮ বছরের যুবা ভীত না হয়ে অসীম সাহস, অবিচল আস্থা আর আত্মবিশ্বাস নিয়ে লড়াই করে দল জেতাতে পারেন- বাংলাদেশ যুব দলের অধিনায়ক আকবর তা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন।

লক্ষ্য খুব বড় না হলেও খেলার যা অবস্থা ছিল, তাতে বাংলাদেশ হেরেও যেতে পারত। কিন্তু চাপের মুখে খেই না হারিয়ে, ধৈর্য্য ধরে পরিস্থিতি মোকাবিলা করে দল জিতিয়ে বিজয়ীর বেশে মাঠ ছেড়েছেন আকবর। তার ঠাণ্ডা মাথার ব্যাটিং দেখে অনেকেই মুগ্ধ।

তাই যুব বিশ্বকাপের পর তার শুধু প্রশংসাই হচ্ছে না, কিছু গুণবাচক নামও হয়েছে। কেউ কেউ তাকে ‘মিস্টার কুল’ বলে ডাকতে শুরু করেছেন। যেহেতু ভারতের মহেন্দ্র সিং ধোনির মত তিনিও উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান, তাই কারও মুখে তিনি ‘ক্ষুদে মহেন্দ্র সিং ধোনি।’

আবার যুবাদের ক্রিকেটে বিশ্বসেরা হওয়ার মুহূর্ত থেকে কেউ কেউ তাকে ভালবেসে, আনন্দের আতিশয্যে আবেগতাড়িৎ হয়ে মোগল সম্রাট মহামতি আকবরের নামের সঙ্গে মিলিয়ে ‘আকবর দ্যা গ্রেট’ বলেও ডাকতে শুরু করেছেন।

এই যে সম্রাট আকবরের সঙ্গে মিল রেখে তাকে আকবর দ্য গ্রেট নামে ডাকা- এটা শুনলে কেমন লাগে? বৃহস্পতিবার রাতে ক্রীড়া সাংবাদিক নোমান মোহাম্মদের ইউটিউব লাইভে সে প্রশ্নের মুখোমুুখি হলেন বিশ্ব যুব ক্রিকেট চ্যাস্পিয়ন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক আকবর আলী।

মজার খবর হলো, কেউ ডাকার আগে আকবর নিজেই নিজের নাম রেখেছিলেন ‘আকবর দ্য গ্রেট।’ নিজের আকবর দ্য গ্রেট নামকরণের গল্পই শোনালেন আকবর। জানালেন, আসলে ‘আকবর দ্য গ্রেট’ শুনলেই তার ‘ইনস্টাগ্রাম’ এর কথা মাথায় চলে আসে। মনে হয় কেউ বুঝি তাকে ইনস্টাগ্রাম নামে ডাকছে।

একটু গোলমেলে ঠেকছে, তাই না? আসলে আকবর আলীর ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল নাম ‘আকবর দ্য গ্রেট।’ সে নামকরণ কিন্তু ভারতকে হারিয়ে যুব বিশ্বকাপ বিজয়ের পর নয়, বেশ আগে। গত বছর জুলাই-আগস্টে।

সে কাহিনী বলতে গিয়ে আকবর জানান, ‘আমি ইনস্টাগ্রামে একাউন্ট খুলেছি বছর দুয়েক আগে। তখন অবশ্য নাম আকবর দ্য গ্রেট ছিল না। সেটা রেখেছি গত বছর জুলাই কিংবা আগস্টে, আমরা ইংল্যান্ড সফর থেকে দেশে ফেরার পর।’

বলার অপেক্ষা রাখে না, তার নামের প্রথম অংশ বিখ্যাত মোগল সম্রাট আকবরের সঙ্গে মিল রেখে। তাই ইনস্টাগ্রাম নাম পাল্টানোর সময় তার মাথায় আসে, আচ্ছা আকবর দ্য গ্রেট রাখলে কেমন হয়?

তার ভাষায়, ‘নামকরণের আগে ভেবেছি অনেক। একসময় মাথায় আসলো, শুনেছি ইতিহাসে তিনজন গ্রেট; আকবর দ্য গ্রেট, অশোক দ্য গ্রেট আর আলেকজান্ডার দ্য গ্রেট। সেখান থেকেই আকবর দ্য গ্রেট বেছে নিলাম। এখন যখন ঐ নাম শুনি, তখন মনে হয় আমার ইনস্টাগ্রামের নামেই ডাকছে কেউ।’

এই নামকরণটা নিছক মজা করেই রাখা। তা জানিয়ে আকবর আলী শেষ করেন, ‘আসলে আকবর দ্য গ্রেট নাম কিন্তু কিছু চিন্তা করে রাখা হয়নি। এটা এমনিই মজা করে। ভাল লাগলে থাকবে। আর ভাল না লাগলে চেঞ্জ করে ফেলব।’

উপরে