শনিবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০২১ | ২রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

মানুষ সৃষ্টির মৌলিক ৩টি উদ্দেশ্য

প্রকাশের সময়: ৬:১৫ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার | মার্চ ২৪, ২০২০

currentnews

ডেস্ক রিপোর্ট : মানুষের মাধ্যমে সম্পাদিত ইবাদতের মানে কি? কোন প্রক্রিয়ায় মানুষ আল্লাহ হুকুম-আহকাম পালনের মাধ্যমে ইবাদত করবে তথা মানুষ সৃষ্টির শুকরিয়া জ্ঞাপন করবে? মানুষ হিসেবে পৃথিবীতে আগমনের কারণে যে প্রক্রিয়ায় ইবাদত তথা সৃষ্টির উদ্দেশ্য সফল হবে তা হলো-

প্রথমত আল্লাহ তাআলাকে রব হিসেবে মেনে নেয়া এবং তার দাসত্ব স্বীকার করা।
আল্লাহ তাআলার নির্দেশ মেনে তার পরিপূর্ণ আনুগত্য স্বীকার করা।
সর্ব বিষয়ে আল্লাহ তাআলার সম্মান ও সম্ভ্রম রক্ষা করা অর্থাৎ আল্লাহ তাআলাকে প্রভূ বলে স্বীকার করা; অন্য কাউকে নয়।

আল্লাহ হুকুম-আহকাম তথা হালালকে হালাল আর হারামকে হারাম বলে জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে মেনে নেয়া।

শুধুমাত্র আল্লাহর সম্মান ও সম্ভ্রমের প্রতি লক্ষ্য রেখে শুধুমাত্র তার সামনে মাথা নত করা বা সিজদা করা।

পরিশেষে…
জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে যাবতীয় কাজ-কর্মে আল্লাহর হুকুম আহকাম মেনে চলাই হলো মানুষ সৃষ্টির মূল উদ্দেশ্য। আর তার হুকুম-আহকাম পালনের আমলই হলো ইবাদত। কুরআনে পাকের ঘোষণাও এ রকমই।

আল্লাহর দরবারে মুসলিম উম্মাহর ফরিয়াদ, ‘হে আল্লাহ! আপনাকে রব বা প্রভূ বলে স্বীকার করে, আপনার হুকুম-আহকাম যথাযথ মেনে মানুষ সৃষ্টি হক আদায়ে শুধুমাত্র আপনার সম্মানে সিজদায় মাথা নত করার তাওফিক দান করুন। ইসলামের বিধান পরিপূর্ণ পালনে মুসলিম উম্মাহকে কবুল করুন।

সর্বোপরি দুনিয়ার সব মানুষকে কুরআন-সুন্নাহ মোতাবেক তার দাসত্ব বা গোলামি করার জন্য কবুল করুন। আমিন।

উপরে