মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই, ২০২১ | ১২ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

রাতের লাস ভেগাস

প্রকাশের সময়: ৬:৪৫ অপরাহ্ণ - বৃহস্পতিবার | জানুয়ারি ১৪, ২০২১

currentnews

মোজাভে নামের মরুভূমির মাঝে ঝলমলে এক শহর। রাতের বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে পুরো শহরটাকে। শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নয়, সারা বিশ্বের পর্যটকদের আকর্ষণ। শহর লাস ভেগাস।

মেয়ে থাকে লস এঞ্জেলসের এক শহরে। সেখান থেকেই কয়েক ঘণ্টার ড্রাইভ। অনেক পাহাড়ের পাদদেশ ছুঁয়ে রাস্তার চরাই-উতরাই পেরিয়ে পৌঁছালাম ফ্লেমিঙ্গো হোটেলে।

ফ্রেস হয়ে বেরুলাম লাস ভেগাস দেখতে। হোটেলের ফ্লোর থেকেই আলো ঠিকরে বেরিয়ে আসছে যেন। কালো গ্রানাইড দিয়ে ফ্লোরগুলো বানানো হয়েছে। এতে প্রচুর গ্লিটারস বসানো। সেখানেও নানা রঙের লাইটের সমাহার।

হোটেলের নিচে নেমে অবাক হতে হলো আরো। নিচের ফ্লোরটার চারদিকে ক্যাসিনো বসানো। ক্যাসিনোর মাঝখান দিয়েই রাস্তাটা।

পরে জানতে পেরেছি, প্রতিটি হোটেলেই একই রকম ব্যবস্থা। একেকটা হোটেল একেকটা শহরের আদলেই তৈরি। প্যারিস ভেনাস থেকে শুরু করে মিশরের পিরামিড আর আইফেল টাওয়ার থেকে নিউইয়র্ক শহর।

হোটেলের সিঁড়িতে দাঁড়ালেই সিঁড়ি চলতে শুরু করে। ছোট ছোট শাটল ট্রেনেরও প্রচলন আছে। বড় বড় তেজি ঘোড়া দিয়ে সাজানো গাড়িগুলোতে নানা বর্ণের মেয়েরা নেচেগেয়ে দর্শকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছে।

দুনিয়ার ছোটখাটো একটা মডেল যেন তৈরি করে রেখেছে এখানে। একেকটা হোটেল একেকটা শহরের আদলেই তৈরি। রাস্তার দুধারে এত বাতির ঝলকানিতে মনে হয় তারাগুলো যেন খসে খসে নিচে নেমে এসেছে।

লাকজোর হোটেলে ঢুকে মনে হলো, মিশরের পিরামিডে ঢুকে পড়েছি। হোটেলের ভিতরে ক্যাসিনোর টেবিলের পাশেই সাদা চামড়ার মেয়েরা বিভিন্ন সাজে অর্ধনগ্ন হয়ে নেচে চলেছে। রাস্তাতেও তেমনি শ্বেতাঙ্গ মেয়েদেরকে শারীরিকভাবে বিভিন্ন ভঙ্গিতে কসরত করতে দেখা যায়।

রাস্তায় নেমে প্রায় পাঁচ তালা ভবনের সমান উঁচু কোকাকোলা বোতল দেখে অনেকেই হা করে তাকিয়ে আছে। এখানে ট্রাম্পেরও একটা হোটেল আছে, নাম ‘দি ট্রাম্প’। পুরো শহরের মাঝখানে ফোয়ারা বসানো হয়েছে নানান রকম করে, সেগুলো প্রদর্শন করা হচ্ছে। সবাই বিস্ময়ের সঙ্গে তা দেখছে মুগ্ধ নয়নে। এক হোটেলের নাম সার্কাস। পুরাতন হোটেল। সেখানে সবসময়ই সার্কাস দেখানো চলছে। হোটেল ভেনিসও খুব সুন্দর।

পরদিন সকালে নাস্তা সেরে বের হই শহর দেখতে। সম্পূর্ণ ভিন্ন চিত্র দেখতে পেলাম শহরে। রাতের হৈচৈ একদমই বিলুপ্তপ্রায়। যার যার অফিসের কাজে সে সে ব্যস্ত। উঁচু বিরাট একটা নাগরদোলায় উঠলাম। সবচেয়ে উঁচুতে উঠে পুরো শহরের দৃশ্য দেখতে পেলাম। নিচে গাড়িগুলো পিঁপড়ের সারির মতো চলতে দেখে মুগ্ধ হলাম। এই সেই লাস ভেগাস।

রাতে কোটি কোটি ডলারের জুয়া খেলা চলে। মদ্যপান আর অর্ধনগ্ন সাদা চামড়ার মেয়েদের নৃত্যে মশহুর বেসামাল মাতালদের আলাপচারিতা। মরুভূমির মাঝে নেভাডা স্টেটের ঝলমলে শহর এই লাস ভেগাস।

আর্কাইভ

বিজ্ঞাপন

https://www.revenuecpmnetwork.com/hsbkfw8q51?key=6336343637613361393064313632333634613266336230363830336163386332

উপরে